English|Bangla আজ ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার রাত ১০:২০
শিরোনাম
কুড়িগ্রামে গাছের ডাল পড়ে প্রান গেল কাঠঁ ব্যবসায়ীরনাচনাপাড়ায় বাস্তবে একটি ইবতেদায়ী মাদ্রাসা থাকলেও একই নামে কাগজ-কলমে দেখানো হচ্ছে দুটি।পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শিশু খাদ্য বিতরণসাপাহারে ভুয়া কবিরাজের চিকিৎসায় হাত হারাতে বসেছে সাত বছরের শিশু!পলাশবাড়ীতে জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিতনাগেশ্বরী কামিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হলেন মোহাম্মদ অাব্দুল অাউয়ালকুড়িগ্রামে মোবাইলে অনলাইনে গেম খেলায় ১১ শিক্ষার্থী আটক- মুচলেকায় অভিভাবকের কাছে হস্তান্তরডিসিসিআই’র আয়োজনে ” সাস্টেইনএবল রিভার ড্রেজিং: চ‍্যালেঞ্জেস এন্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড ” শীর্ষক অনলাইন আলোচনা সভায় নৌ প্রতিমন্ত্রীখানসামায় লকডাউন বাস্তবায়নে চলছে এসিল্যান্ড এর বাজার মনিটরিং ও ভ্রাম্যমাণ অভিযানচাঁপাইনবাবগঞ্জে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ১, শনাক্ত ২৭

সিঙ্গাপুরে নতুন ৪ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত, সবাই বিদেশ ফেরত

মাহমুদ তপন সিঙ্গাপুর প্রতিনিধি

@দৈনিক একাত্তর জার্নাল

আজকে ২০ নভেম্বর (দুপুর ১২ টা পর্যন্ত) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া সর্বশেষ তথ্যমতে,সিঙ্গাপুরে আজকে নতুন ৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

সিঙ্গাপুরে এখন পর্যন্ত মোট ৫৮১৪৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত করা হয়েছে।

আজকে আক্রান্তের মধ্যে সবাই বিদেশ ফেরত যারা যিনি স্টে হোম নোটিশে ছিলেন৷ ডরমিটরি এবং কমিউনিটি থেকে কোন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত করা হয়েনি। আজকেসহ পরপর ১০ দিন ডরমিটরি ও কমিউনিটি থেকে কোন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়নি৷

গত কয়েকদিনে সিঙ্গাপুরে দৈনিক করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ;

১১/১১/২০ : ১৮ জন৷
১২/১১/২০ : ১১ জন৷
১৩/১১/২০: ১২ জন।
১৪/১১/২০ : ২ জন৷
১৫/১১/২০ : ৩ জন৷
১৬/১১/২০ : ৫ জন৷
১৭/১১/২০ : ৬ জন৷
১৮/১১/২০ : ৫ জন।
১০/১১/২০ : ৪ জন৷

করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে ১৯ নভেম্বর নতুন ৬ জন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন। সিঙ্গাপুরে এই পর্যন্ত মোট ৫৮০৫২ জন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন৷

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এই পর্যন্ত সিঙ্গাপুরে ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

২৮ জন এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন৷ এদের মধ্যে একজন আইসিইউতে। ৩১ জনের অবস্থা ক্লিনিক্যালি ভালো কিন্তু পরীক্ষায় করোনাভাইরাস পজিটিভ হওয়ায় তাদেরকে অন্য রোগীদের কাছ থেকে আলাদা রাখা ও যত্নের জন্য অন্যত্র সরিয়ে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে৷

মাহমুদ তপন /সিঙ্গাপুর থেকে

তথ্য ও ছবি : The Straits times

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো