English|Bangla আজ ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার রাত ১০:২৯
শিরোনাম
ভালুকায় আতংকে আছে নাজমার পরিবারকুড়িগ্রামে গাছের ডাল পড়ে প্রান গেল কাঠঁ ব্যবসায়ীরনাচনাপাড়ায় বাস্তবে একটি ইবতেদায়ী মাদ্রাসা থাকলেও একই নামে কাগজ-কলমে দেখানো হচ্ছে দুটি।পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শিশু খাদ্য বিতরণসাপাহারে ভুয়া কবিরাজের চিকিৎসায় হাত হারাতে বসেছে সাত বছরের শিশু!পলাশবাড়ীতে জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিতনাগেশ্বরী কামিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হলেন মোহাম্মদ অাব্দুল অাউয়ালকুড়িগ্রামে মোবাইলে অনলাইনে গেম খেলায় ১১ শিক্ষার্থী আটক- মুচলেকায় অভিভাবকের কাছে হস্তান্তরডিসিসিআই’র আয়োজনে ” সাস্টেইনএবল রিভার ড্রেজিং: চ‍্যালেঞ্জেস এন্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড ” শীর্ষক অনলাইন আলোচনা সভায় নৌ প্রতিমন্ত্রীখানসামায় লকডাউন বাস্তবায়নে চলছে এসিল্যান্ড এর বাজার মনিটরিং ও ভ্রাম্যমাণ অভিযান

সচেতনতা বার্তা নিয়ে পায়ে হেঁটে ৭০ কিঃমিঃ পথ পাড়ি দিল নোবিপ্রবি শিক্ষার্থী রিয়াদ!

নোবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(নোবিপ্রবি) সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রিফাত জামিল রিয়াদ। তরুণ এই শিক্ষার্থী ঘুরতে ভালোবাসেন, হাঁটতে ভালোবাসেন। হাঁটার মধ্য দিয়েই তিনি মানুষকে সচেতন করতে চান, দেখতে চান গ্রাম-বাংলাকে। ‘মাস্ক ব্যবহার করুন’, ‘গাছ লাগান, পরিবেশ বাঁচান’, ‘মাদককে না বলুন’ এ তিন সচেতনতা বার্তা নিয়ে পায়ে হেঁটে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা হতে ময়মনসিংহ পর্যন্ত দীর্ঘ ৭০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছেন রিয়াদ। করোনাভাইরাস রোধে পথিমধ্যে ভ্রাম্যমাণ মানুষের মাঝে মাস্কও বিতরণ করেছেন তিনি।

জানা গেছে, গত ১৭ জানুয়ারি রবিবার দুপুরে রিয়াদ তার গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জের ধর্মপাশার মাটিকাটা থেকে বের হয়ে ওইদিন রাতে নেত্রকোণা সদরের বাংলাবাজারে এসে পৌঁছান। ওইদিন ৩৫ কিলোমিটার পথ হাঁটেন তিনি। পরদিন বিশ্রাম নিয়ে আবার ১৯ জানুয়ারি সকাল এগারোটায় নেত্রকোণা বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে শুরু করে ১৮ কিলোমিটার পথ হেঁটে শ্যামগঞ্জ বাজারে এসে দুপুরের খাবার সেরে আবার ১৭ কিলোমিটার পথ হেঁটে ময়মনসিংহের শম্ভুগঞ্জ এলাকায় পৌঁছান। তখন সময় রাত সাতটা। এদিকে রিয়াদের এ প্রচেষ্টার প্রশংসা করে তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নেত্রকোণার মোহনগঞ্জ রেলস্টেশন এলাকায় মোহনগঞ্জের জনপ্রিয় মঞ্চ উপস্থাপক হাবিবুর রহমান হানিফ।

রিফাত জামিল রিয়াদ বলেন,’ গ্রাম বাংলাকে দেখা আর মানুষকে সচেতন করা এ দুই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে হাইকিং শুরু করেছি। পায়ে হেঁটে দেশের প্রতিটি জেলায় পদচারণা করতে চাই। সবাই দোয়া করবেন আমি যেন আমার লক্ষ্য পূরণ করতে পারি

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো