English|Bangla আজ ২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার রাত ৪:২৮
শিরোনাম
লক্ষ্মীপুর-২ সংসদ উপনির্বাচন: নৌকার প্রার্থীর বিজয়পত্নীতলায় সরকারি নির্দেশনা না মানায় ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানাপলাশবাড়ীর হোসেনপুর ইউনিয়নে ভিজিডি কার্ডধারীদের মাঝে চাল বিতরণনরসিংদীতে পলাশের ডাংগা ইউনিয়নে আ.লীগ প্রার্থী ও গজারিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়লাভতাহিরপুর অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায় এক লক্ষ টাকা জরিমানাসিএমপি’র স্কুল এন্ড কলেজকে নিটল মটরস লিমিটেড কর্তৃক ০১টি পরিবহন বাসের চাবি সিএমপি পুলিশ কমিশনার মহোদয়কে হস্তান্তর অনুষ্ঠানকুমিল্লা সদরের উঃকালিয়াজুরী কোড়ের পাড়ের রাস্তাটি আবাও দখল মুক্তদাউদকান্দিতে স্বামীকে ভিডিও কলে রেখে স্ত্রী’র আত্মহত্যা!একটু মাথা গোঁজার ঠাঁই খোঁচ্ছে রোকিয়ারায়পুরে পুকুরে ডুবে এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় ঢাকার জলবদ্ধতা নিরসন সম্ভব

মাননীয় গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপি

নীহার বকুল :

গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপি মহোদয় বলেছেন, রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে সরকারি বিভিন্ন সংস্থার পাশাপাশি জনগণকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে।


তিনি বৃহস্পতিবার গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এবং রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের মালিকানাধীন বিভিন্ন জলাশয়, লেক ও খাল পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, রাজধানী ঢাকার ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা এবং ভূমির যথেচ্ছ ব্যবহারের ফলে ভারী বর্ষণে প্রায়ই বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতা দেখা যায়। এই জলাবদ্ধতার পেছনে প্রাকৃতিক কারণের পাশাপাশি মানবসৃষ্ট কারণ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দায়ী। অনেক ক্ষেত্রে পানিপ্রবাহের স্বাভাবিক পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে বিভিন্ন স্থাপনা তৈরি জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে। তাছাড়া ড্রেনেজ স্যুয়ারেজ লাইনে কঠিন ময়লা-আবর্জনা ফেলার ফলে অনেক সময় পানির স্বাভাবিক প্রবাহ ব্যাহত হয় এবং অল্প বর্ষণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এসব ক্ষেত্রে শুধু সরকারি পদক্ষেপে সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। এ ক্ষেত্রে স্থানীয় জনগণের মধ্যে প্রয়োজনীয় সচেতনতা এবং সহযোগিতার মনোভাব থাকতে হবে। সরকারি বিভিন্ন সংস্থা এবং স্থানীয় জনগণ মিলে আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করলে এই সমস্যার স্থায়ী সমাধান সম্ভব।


প্রতিমন্ত্রী জলাবদ্ধতা নিরসনে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের এবং রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সংশ্লিষ্ট সকলকে চলতি বর্ষা মৌসুমে সম্ভাব্য জলাবদ্ধতা প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশনা প্রদান করেন।


গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ শহীদ উল্লাহ খন্দকার, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এবিএম আমিন উল্লাহ নুরীসহ মন্ত্রণালয়ের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।
পরিদর্শন শেষে প্রতিমন্ত্রী উত্তরা ১৮ নম্বর সেক্টরে রাস্তার আইল্যান্ডে একটি ফলদ, একটি বনজ ও একটি ঔষধি বৃক্ষ রোপণ করেন।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো