English|Bangla আজ ৯ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার বিকাল ৪:০৬
শিরোনাম
গংগাচড়ায় ইসলামের আলো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের বিনামূল্যে কোরআন শরীফ বিতরণকুড়িগ্রামে নারী দিবসে দুগ্ধপোষ্য শিশুসহ নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করলো পুলিশপলাশবাড়ীতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিতপীরগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধনGUBK Award 2021 পেলেন নারী সাংবাদিক দৈনিক পূর্বকণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক শাহীন সুলতানাসাতক্ষীরায় ৭ মার্চ উপলক্ষে আবৃত্তিতে শিশু শিল্পী হিসেবে প্রথম হয়েছেন সাংবাদিক কন্যা দিঘী ।নবীনগরে নারী দিবসে ১০ লক্ষ টাকা ঋণ বিতরনকরোনাকালে নারী নেতৃত্ব গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব”এই শ্লোগানে নরসিংদীতে নারী দিবস পালিতকাপাসিয়া ডেইরী ফার্মারস এসোসিয়েশনের কমিটি গঠনপত্নীতলায় আর্ন্তজাতিক নারী দিবস উদযাপন

মৃত্যুকূপ চাঁদপুর ট্রায়াঙ্গেল

বারমুডা ট্রায়াঙ্গেল এর কথা সবার জানা থাকলেও চাঁদপুর ট্রায়াঙ্গেল সম্পর্কে অনেকেই তেমন কিছু জানেন না। পাঠকদের জন্য আজ আমাদের আয়োজন রহস্যে ঘেরা চাঁদপুর ট্রায়াঙ্গেল সম্পর্কে।

বিশাল ঘূর্ণিপাক। চারপাশ থেকে প্রবাহিত হচ্ছে তীব্র স্রোত। ভয়ঙ্কর ওই ঘূর্ণিপাকে কিছু পড়লে তার আর হদিস মেলে না। এমনকি বড় বড় যাত্রীবাহী লঞ্চও তলিয়ে গেছে এখানে, যেগুলোর সন্ধান কোনোদিনই আর পাওয়া যায়নি। বলছি চাঁদপুরের ত্রিনদীর সঙ্গমস্থলের কথা, যা স্থানীয়ভাবে কোরাইলার মুখ নামেও পরিচিত।

পদ্মা, মেঘনা ও ডাকাতিয়া তিন নদী এসে মিলেছে এখানে। নদীগুলো তিনদিক থেকে প্রবাহিত হয়ে মিশে যাওয়ায় সেখানে পানির বিশাল এক ঘূর্ণিগর্তের সৃষ্টি হয়েছে। আর এই ট্রায়াঙ্গেলে পড়েই নিখোঁজ হয়েছে শত শত মানুষ, লঞ্চসহ কার্গো কিংবা ট্রলার। তিন নদীর এ সঙ্গমস্থল যেন এক মৃত্যুকূপ।

মোহনাটি নদীর একেবারে তীরে অবস্থিত। সাধারণত নদীর তীর অগভীর থাকে। তবে আশ্চর্যজনক হলেও সত্যি, নদীর তীরে হওয়া স্বত্ত্বেও এই মোহনা অনেক গভীর। বর্ষাকালে এটি রূপান্তরিত হয় মৃত্যুকূপে। পানির ভয়ঙ্কর ঘূর্ণি দেখে মানুষের মনে শিহরণ জাগে। এই মোহনা নিয়ে লোকমুখে অনেক গল্প প্রচলিত রয়েছে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কাউন্সিলর ফরিদা ইলিয়াস বলেন, মোহনায় দুর্ঘটনা প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে। জেলে নৌকা, মালবোঝাই ট্রলার ও যাত্রীবাহী ট্রলার প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। আমরা এসব দুর্ঘটনা এড়াতে সর্বদা কাজ করছি। যতদিন ডুবচর ও বিপরীত পাশের চরগুলো খনন করা না হবে, ততদিন এখানে স্রোত কমবে না। স্রোতের কারণে শহর রক্ষা বাঁধও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। স্রোতের গতিপথ পরিবর্তন হলে এখানে দুর্ঘটনা কমে আসবে। এদিকে বিপরীত পাশের চর জেগে ওঠায় পদ্মা নদীতে ইলিশ ঢুকতে পারছে না। এজন্য ইলিশ আহরণও হুমকিতে রয়েছে।

চাঁদপুর নৌ থানার ওসি মো. আবু তাহের বলেন, মোহনাটিতে সবসময়ই প্রবল ঘূর্ণি স্রোত বয়ে যেতে থাকে। যার কারণে নৌযানগুলো দুর্ঘটানার শিকার হয়। এখানে কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে আমরা সঙ্গে সঙ্গেই উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করি। এছাড়া, ঝুঁকি কমাতে এ স্থানে সতর্কতা জারি করা হয়।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো