English|Bangla আজ ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার রাত ১:৩৬
শিরোনাম
পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শিশু খাদ্য বিতরণসাপাহারে ভুয়া কবিরাজের চিকিৎসায় হাত হারাতে বসেছে সাত বছরের শিশু!পলাশবাড়ীতে জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিতনাগেশ্বরী কামিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হলেন মোহাম্মদ অাব্দুল অাউয়ালকুড়িগ্রামে মোবাইলে অনলাইনে গেম খেলায় ১১ শিক্ষার্থী আটক- মুচলেকায় অভিভাবকের কাছে হস্তান্তরডিসিসিআই’র আয়োজনে ” সাস্টেইনএবল রিভার ড্রেজিং: চ‍্যালেঞ্জেস এন্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড ” শীর্ষক অনলাইন আলোচনা সভায় নৌ প্রতিমন্ত্রীখানসামায় লকডাউন বাস্তবায়নে চলছে এসিল্যান্ড এর বাজার মনিটরিং ও ভ্রাম্যমাণ অভিযানচাঁপাইনবাবগঞ্জে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ১, শনাক্ত ২৭বান্দরবানে টানা বর্ষণে পানিবন্দী মানুষের মাঝে খাবার পৌঁছে দিল সেনাবাহিনীচট্রগ্রাম নগরীর আগ্রাবাদে নারী ছিনতাইকারী গ্রেফতার

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিজড়িত ভূমি হতে,দখলবাজদের স্থাপনা ঘুড়িয়ে দেয় প্রশাসন

সুুুুনামগঞ্জ তাহিরপুর প্রতিনিধিঃ

সুুুুনামগঞ্জ তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত টেকেরঘাট সাবসেক্টরের ভূমি ও মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য নির্ধারিত সমাবেশ স্থল, মুক্তি মঞ্চ থেকে দখলবাজদের উচ্ছেদ করেছে প্রশাসন। জেলা প্রশাসকের নির্দেশে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যানার্জি এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন। অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করায় মুক্তিযোদ্ধারা মিছিল করে প্রশাসনকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। উচ্ছেদের পর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওই স্থানে একটি মুুক্তিযুদ্ধ পাঠাগার নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

তথ্য সূত্রে জানা গেছে, তাহিরপুর উপজেলার টেকেরঘাটে জেলা প্রশাসনের ১নং খতিয়ানের ৭৬ একর খাস ভূমি রয়েছে। এই ভূমিতে ১৯৬৫ সনে খনিজ প্রকল্প প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। ১৯৭১ সনে এই খনিজ প্রকল্পটি টেকেরঘাট সাব সেক্টরের কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার হতো। এসময় মুক্তাঞ্চল ছিল এই এলাকা। যুদ্ধের পর বিসিআইসির শ্রমিকদের অফিসের সামনের উন্মুক্ত মাঠটি স্থায়ী একটি মঞ্চ করে বিজয় মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করতেন মুক্তিযোদ্ধারা।

এখানে বিজয় দিবস, স্বাধীনতা দিবসসহ মুক্তিযোদ্ধারা নানা অনুষ্ঠান করতেন। কিন্তু ২০১৫ সালে হঠাৎ করে উপজেলার তরং গ্রামের প্রয়াত আবদুর রউফ তালুকদারের ছেলে শামীম আহমদ তালুকদার ও স্বপন দাস নামের জনৈক ব্যক্তি দুটি ভবন দখল করে একটি কিন্ডারগার্টেন প্রতিষ্ঠা করে বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার করছিল। একটি ভবন কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টারকে ভাড়া দিয়ে অবৈধভাবে অর্থ আয় করছিল তারা।

তাছাড়া মুক্তি মঞ্চ সহ মাঠকে অস্থায়ী দেয়াল দিয়ে ঘিরে ফেলে। এরপর থেকে মুক্তিযোদ্ধারা বিজয় মঞ্চ থেকে উচ্ছেদ হন। এর প্রতিবাদে উপজেলার উত্তর শ্রীপুর, উত্তর বড়দল ও দক্ষিণ বড়দলের শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা দখলবাজদের কবল থেকে বিজয় মঞ্চসহ মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থানটি উদ্ধারের জন্য আবেদন করেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে দখলবাজদের উচ্ছেদ করা হয়নি বলে অভিযোগ করেন মুক্তিযোদ্ধারা।

গত ৪ ডিসেম্বর তাহিরপুর মুক্ত দিবসে তিন ইউনিয়নের শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা উপজেলা প্রশাসনকে আল্টিমেটাম দেন এই বিজয় মঞ্চ দখলমুক্ত না হলে তারা আগামী ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে প্রশাসনের সম্মাননা নেবেন না। এতে টনক নড়ে প্রশাসনের। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ উপজেলা প্রশাসনকে সময় ধরে দখলবাজদের উচ্ছেদে নির্দেশ দেন। জানা গেছে উচ্ছেদের আগে উপজেলা প্রশাসন দখলবাজদের নোটিশ দেবার পর তারা দখলের বিপরীতে কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। তাই মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) উপজেলা প্রশাসন দখলবাজদের স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়।

এদিকে দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে প্রশাসন মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থান ও বিজয়মঞ্চ উদ্ধার করায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আনন্দ মিছিল করেছেন মুক্তিযোদ্ধারা। তাহিরপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক সভাপতি রৌজ আলীর নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধারা আনন্দ মিছিল করে প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

মুক্তিযোদ্ধা রৌজ আলী গণমাধ্যম কে বলেন, শহীদের রক্তেভেজা এই মাটি ও বিজয় মঞ্চ থেকে আমাদের উচ্ছেদ করা হয়েছিল। আমরা দখলবাজদের উচ্ছেদের দাবিতে অভিযোগ দিয়েছিলাম, আন্দোলন করেছিলাম। কিন্তু উচ্ছেদ হচ্ছিল না। অবশেষে নিরুপায় হয়ে আমরা আগামী ১৬ ডিসেম্বর প্রশাসন কর্তৃক মুক্তিযোদ্ধা সংবর্ধনা বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। আজ প্রশাসন দখলবাজদের কবল থেকে বিজয়মঞ্চসহ মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থান উদ্ধার করেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যানার্জী গণমাধ্যম কে বলেন, এই সম্পত্তি সরকারি। দখলবাজরা অবৈধভাবে দখল করে ব্যবহার করে বাণিজ্যিকভাবে ফায়দা লুটছিল। আমার নোটিশ দিলে তারা কোন কাগজ দেখাতে পারেনি। নিজেরাও স্থাপনা সরিয়েও নেয়নি। তাই আমরা জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নির্দেশে উচ্ছেদ করেছি। এখন এখানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক পাঠাগার করে দেব আমরা।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো