English|Bangla আজ ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার রাত ১০:২৫
শিরোনাম
প্রকাশিত খবরের প্রতিবাদ জানিয়ে কাজীর সংবাদ সম্মেলনচরফ্যাশন পৌর সভায় আওয়ামীলীগের জয়বান্দরবানে অজ্ঞাত ব্যাক্তির লাশ উদ্ধারআবারও খানসামায় দ্রুতগামী মটরসাইকেল-নসিমন সংঘর্ষে যুবক নিহত।মোছাঃ মাহমুদা ইসলাম সেফালী প্রাইসমানি ফুটবল টুর্নামেন্টে ২০২১ শুভ উদ্বোধনচিলমারীতে বিএনপির সংবাদ সম্মেলনশেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে রুপান্তরিত হয়েছে ….নওগাঁয় তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদবাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বাবু ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার সৌজন্যে প্রদত্ত শীতবস্ত্র বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্টিতঘাটাইলে সংবর্ধনা ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনীসাংবাদিক বোরহানউদ্দিন মোজাক্কির কে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন পালিত

মধ্যনগরে সরকারি ৪৫ একর জলাশয় প্রভাবশালীদের ভোগ দখলে

সুনামগঞ্জ মধ্যনগর বংশীকুন্ডা উত্তর ইউনিয়নের টাংগুয়ার হাওর সংলগ্ন উত্তরের ছড়ার বিল নামক সরকারী জলাশয় ভূমি স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ভেগদখলে রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানাযায় সুনামগঞ্জ মধ্যনগর থানার টাংগুয়ার হাওর সংলগ্ন বংশীকুন্ডা উত্তর ইউনিয়নের উত্তরের জামালপুর মৌজার ১৪৪৮নং দাগের ৪৫ একর উত্তরের ছড়ার বিল নামক সরকারি জলাশয় ভূমিটি গত ৪/৫ বছর যাবৎ সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালী নুরুল ইসলাম গংরা নিজেদের ভোগ দখলে রেখেছে, স্থানীয়রা বাঁধা দিলে প্রভাবশালী নুরুল ইসলাম কর্তৃক বিভিন্ন ভাবে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

এ ব্যাপারে স্থানীয় রাজেন্দ্রপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তার এর ছেলে মোঃ মোতালেব মিয়া স্থানীয় প্রতিবেশী ও গ্রামবাসীর পক্ষে সরকারি জলাশয় প্রভাবশালীদের দখল হইতে উদ্ধারের জন্য ধর্মপাশা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেন।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জানাযায়, উল্লেখিত জলাশয় ভূমিটি সরকারি খাস,স্থানীয় এলাকাবাসী দৈনন্দিন বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করে আসছিল। কিন্তু বিগত ৪/৫ বছর যাবৎ একই এলাকার বংশিকুন্ডা উত্তর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য, রামপুর গ্রামের প্রভাবশালী ব্যক্তি নুরুল ইসলাম ও তার সহযোগীদের দিয়ে প্রভাব খাটিয়ে সরকারি জলাশয় ভূমি নিজের ভুগ দখলে নিয়ে,সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে তাহার নিয়োজিত লোকজন দ্বারা সরকারি নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে অবৈধ কারেন্ট জাল, সহ বিভিন্ন মাছ ধরার সরঞ্জাম দ্বারা মৎস্য আহরণ করিয়া আসিতেছে। এছাড়াও আবেদনে উল্লেখিত বিষয়ে জানাযায় আবেদনকারী, টাংগুয়ার হাওর রাজেন্দ্রপুর সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির সভাপতি, উনি গত (১৯নভেম্বর) আনুমানিক ৯ঘটিকায় নুরুল ইসলাম মেম্বার সহ তার লোকজনদের উল্লেখিত জলাশয়ে মাছ ধরা থাকা বস্থায় দেখিতে পাইয়া।মোতালেব মিয়া অবৈধভাবে মাছ না ধরার জন্য বাঁধা নিষেধ করিলে, নুরুল ইসলাম সহ তার সঙ্গীয় লোকজন মোতালেব মিয়া কে,অক্ষত ভাষায় গালিগালাজ করিয়া, তাহাকে মারধর করার জন্য এগিয়ে আসলে, মোতালেব মিয়া ডাক চিৎকার করিলে তৃতীয় পক্ষ লোকজন ঘটনাস্থলে আসিলে কোন গর্হিত গঠনা ঘটেনি।

এ ব্যাপারে নুরুল ইসলাম এর মোবাইল ফোনে একাধিক বার ফোন করলেও উনি ফোন রিচিব না করায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

আবেদনকারী মোতালেব মিয়া বলেন আমি সহ স্থানীয় কয়েকজন, সরকারি জলাশয় রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে নুরুল ইসলাম সহ কয়েকজন ভোগদখল করে আসছে বলে বাঁধা দিলে, আমরা মিথ্যা মামলা সহ বিভিন্ন ভাবে হয়রানির শিকার হয়ে হয়েছে। তাই গত প্রায় একমাস পূর্বে সরকারি জলাশয় এই প্রভাবশালীদের হইতে উদ্ধারের জন্য ধর্মপাশা উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভুমি) বরাবর লিখিত আবেদন করেছিলাম, এখন কোন তদন্ত করা হয়নি, তবে তদন্ত হলেই সত্যতা প্রমাণিত হইবে।

এ ব্যাপারে ধর্মপাশা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি)আবু তালেব এর কাছে জানতে চাইলে উনি বলেন আমি সরকারি জলাশয় দখল হইতে উদ্ধারের একটি আবেদন পেয়েছি, আমি এ বিষয়ে তহশিলদার কে দায়িত্ব দিয়েছি সরেজমিনে পরিদর্শন করে আমাকে জানানোর জন্য,উনি জানানোর পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো