English|Bangla আজ ১লা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার দুপুর ১:২৮
শিরোনাম
দিনাজপুরে নাগরিক উদ্যোগ এবং এসসিডিএস এর উদ্যোগে সুন্দর হাতের লেখা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিতচরফ্যাশনে মেয়র- সাধারন কাউন্সিলদের ভোট বিন্যাসপ্রকাশিত খবরের প্রতিবাদ জানিয়ে কাজীর সংবাদ সম্মেলনচরফ্যাশন পৌর সভায় আওয়ামীলীগের জয়বান্দরবানে অজ্ঞাত ব্যাক্তির লাশ উদ্ধারআবারও খানসামায় দ্রুতগামী মটরসাইকেল-নসিমন সংঘর্ষে যুবক নিহত।মোছাঃ মাহমুদা ইসলাম সেফালী প্রাইসমানি ফুটবল টুর্নামেন্টে ২০২১ শুভ উদ্বোধনচিলমারীতে বিএনপির সংবাদ সম্মেলনশেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে রুপান্তরিত হয়েছে ….নওগাঁয় তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদবাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বাবু ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার সৌজন্যে প্রদত্ত শীতবস্ত্র বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত

বরগুনায় মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলা!

মোঃ সানাউল্লাহ, বরগুনা প্রতিনিধিঃ

জমি নিয়ে বিরোধেদের জেরে বরগুনার সদর উপজেলার কলেজ সড়কের বাসিন্দা আবদুস সোবাহান নামের একজন মুক্তিযোদ্ধার ওপর হামলা অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায় বৃহস্পতিবার বিকালে কলেজ সড়কের শ্যামলী হলের পাশ্চিম পাশে তাঁর মালিকানাধীন জমিতে কাজ করতে গেলে প্রতিপখ শাহীন বাঁধা দেয়। মাগরিবের নামাজ শেষে বাসায় ফেরার পথে শাহীন ও তার ছেলে সাজ্জাদ হোসেন জ্যাকি, ভাইয়ের ছেলে জয়, বোনের ছেলে রিমনসহ বেশ কয়েকজন সোবাহানকে লাঞ্চিত করে। এসময় স্থানীয়রা বাঁধা দিতে আসেলে মিজান ও সবুজ নামের দুজন আহত হয়। পরে তাদের চিকিৎসার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধা সোবাহান বলেন, শাহীন সিকদার পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া এলাকার কুখ্যাত রাজাকার চান মিয়ার ছেলে। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় জেলার পিস কমিটির চেয়ারম্যান খলিলের ঘনিষ্ঠ সহযোগী হিসেবে পরিচিত ছিল। পাক আর্মির ক্যাম্প থেকে পালিয়ে যাওয়া ৩০জন নারী পুরুষকে এই চান মিয়া ধরিয়ে দিয়েছিল।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে জুলফিকার শাহীনের ছেলে সাজ্জাদ হোসেন জ্যাকি সিকদার বলেন, আবদুস সোবাহান জোর করে বিরোধীয় সীমানায় কাজ করছিলেন। আমরা তাকে কাজ করতে নিষেধ করেছি।

বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধা সোবাহান বাদি হয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত পূর্বক আইন আনুই ব্যাবস্থা গ্রহন করবো।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো