English|Bangla আজ ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার সকাল ৯:৪৪
শিরোনাম
খানসামায় আচরণবিধি লঙ্ঘন করে সরকারী স্কুলের শিক্ষকরা ইউপি নির্বাচনী প্রচারণায়নওগাঁর রাণীনগরে সাবেক এমপি ইসরাফিলের অবৈধ স্থাপনা অপসারণ করতে নোটিশঝালকাঠিতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অপারেশন থিয়েটার উদ্বোধনবকশীগঞ্জে একাধিক মিথ্যা মামলায় হয়রানির অভিযোগবালিজুড়ী ইউপি নির্বাচনে আ.লীগ মনোনীত প্রার্থী মির্জা ফকরুল ইসলামের মনোনয়ন পত্র জমামুম্বাইয়ে সন্ত্রাসী হামলার ১৩ বছর আজ। পাকিস্তান দূতাবাসের সামনে মানববন্ধন।তৃতীয় দফার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জয়ের পথে লাঙ্গল প্রার্থীরাঝালকাঠিতে প্রেসক্লাবের আয়োজনে “গল্পে গল্পে শিক্ষার্থীদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধ” শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠিতঝালকাঠিতে স্বপ্নের আলো ফাউন্ডেশন’র এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরন বিতরণস্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত ডাঃ এম.আমজাদ হোসেনের নেতৃত্বে চিরিরবন্দরে মেডিকেল ক্যাম্প

জয়াসুরিয়ার ২২ বছরের রেকর্ড ভাঙলেন রোহিত

বিগত ২২ বছরের পুরোনো রেকর্ড ভাঙলেন ভারতের ড্যাশিং ওপেনার রোহিত শর্মা। এ রেকর্ড ভাঙতে তিনি পেছনে ফেলেছেন শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি সনাৎ জয়াসুরিয়াকে।

জানা গেছে, অসাধারণ পারফরম্যান্স করে চলতি বছর শেষ করলেন রোহিত শর্মা। তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ৪৭ ইনিংসে ২ হাজার ৪৪২ রান করেন রোহিত। হাফ সেঞ্চুরি ১০টি। সেঞ্চুরিও ১০টি। ৫৩.০৮ গড়ে এ রান করেছেন তিনি।

২২ বছর আগে ১৯৯৭ সালে ২ হাজার ৩৮৭ রান করেছিলেন জয়াসুরিয়া। দুই ফরম্যাট মিলিয়ে ৪৪ ইনিংস খেলে এই রান করেছিলেন তিনি। জয়াসুরিয়া ৩১টি ওয়ানডে খেললেও ১৯৯৭ সালে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট ছিল না।

তবে রোহিত শর্মা ও সনাৎ জয়াসুরিয়ার মধ্যে বড় পার্থক্য নেই। ২ হাজার ৪৪২ রান করতে ৪৭ ইনিংস পেয়েছেন রোহিত। আর তিন ইনিংস কম খেলে ২ হাজার ৩৮৭ রান করেছিলেন জয়াসুরিয়া।

তাদের পরে রয়েছেন বীরেন্দর শেবাগ ও ম্যাথু হেডেন। ২০০৮ সালে শেবাগ ৪৬ ইনিংস খেলে করেছিলেন ২ হাজার ৩৫৫ রান। আর ২০০৩ সালে হেডেন ৫২ ইনিংস খেলে করেছিলেন ২ হাজার ৩৪৯ রান। এছাড়া শীর্ষ পাঁচে আছেন পাকিস্তানের সাঈদ আনোয়ার। তিনি ১৯৯৬ সালে ৪৮ ইনিংস খেলে ২ হাজার ২৯৬ রান করেছিলেন।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো