English|Bangla আজ ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার রাত ৮:১৯
শিরোনাম
উখিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কমরুদ্দিন মুকুলের বিবৃতিনওগাঁয় মানবাধিকার  ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণসাপাহারে বরেন্দ্র বাতিঘর পাঠাগারের শুভ উদ্বোধনগৌরীপুরে আব্দুল রউফের উপর সন্ত্রাসী হামলা৯৯৯ কলে পুলিশের সহযোগীতায় জীবন বাঁচলো সোমার।খানসামার পুরোনো ঐতিহ্যের জয়সঙ্কর জমিদার বাড়িটি এখন বিলুপ্তির দ্বারপ্রান্তেসুন্দরগঞ্জে শিশুকে অপহরণের পর হত্যা মামলার ১০ আসামী খালাসগাইবান্ধা সদর বোয়ালী ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হয়ে বৈঠা ধরতে চান যুবলীগ নেতা তুহিনচাঁপাইনবাবগঞ্জে স্কুলছাত্রীর উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় দুই চাচাকে মারধররাণীনগরে ১১ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ল্যাপটপ বিতরণ

চট্রগ্রাম বোয়ালখালীতে অস্ত্র কারখানার সন্ধান মিলো

চট্রগ্রাম বোয়ালখালীতে অস্ত্র কারখানার সন্ধান পেল র‍্যাব

আল আমিন চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

চট্রগ্রাম বোয়ালখালী উপজেলায় ৫নং সারোয়াতলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান বেলালের বাড়িতে ‘অস্ত্র কারখানার’ সন্ধান পেয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব)। তবে অভিযানের সময় চেয়ারম্যান এবং তার পরিবারের কাউকে পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে র‌্যাব।
শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) উপজেলার ৫নং সারোয়াতলী ইউনিয়নের হোরারবাগ গ্রামে দুপুর ১২টা থেকে শুরু হওয়া র‌্যাবের অভিযান বিকাল পর্যন্ত চলে।

হোরারবাগ গ্রামের বাসিন্দা আওয়ামী লীগ নেতা বেলাল হোসেন সারোয়াতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। দুই বছর আগে তার বাড়িতে নগরীর বায়েজিদ বোস্তামি থানা পুলিশও চোরাই মোটর সাইকেল ও অস্ত্রের সন্ধানে একদফা অভিযান চালিয়েছিল।

অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া র‌্যাবের চট্টগ্রাম জোনের সিনিয়র সহকারী পরিচালক এএসপি কাজী মো. তারেক আজিজ জানান, ‘সীমানা দেওয়াল দিয়ে ঘেরা চেয়ারম্যান বেলাল হোসেনের বাড়ির ভেতরে বাঁশের তৈরি একটি ঘরে অস্ত্রের কারখানা পাওয়া যায়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা এ অভিযান শুরু করি। চেয়ারম্যান ও তার পরিবারের সদস্যদের কাউকে পাওয়া যায়নি। তারা অস্ত্র কারখানার সঙ্গে সম্পৃক্ত কিনা সেটা আমরা তদন্ত করে দেখব।

র‌্যাব কর্মকর্তা তারেক আজিজ আরও জানান, কারখানায় পিস্তল ও ওয়ান শ্যুটার গান তৈরির বেশকিছু সরঞ্জাম পাওয়া গেছে। একটি ওয়ান শ্যুটার গান ও ২টি বুলেটও পাওয়া গেছে।
র‌্যাবের চট্টগ্রাম জোনের অধিনায়ক লে. কর্নেল মশিউর রহমান জুয়েল বলেন, ‘যদিও বাড়ির সীমানা দেওয়ালের মধ্যে পাওয়া গেছে, তারপরও এই কারখানার সঙ্গে চেয়ারম্যানের সম্পৃক্ততা আছে কিনা সেটা আমরা নিশ্চিত নই।

তবে আমরা সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতেই অভিযান চালিয়েছি। আপাতত আমরা অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে একটি মামলা করব।’ তদন্তে চেয়ারম্যানের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে অভিযোগপত্রে তিনিও আসামি হবেন বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো