English|Bangla আজ ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার রাত ১১:০৫
শিরোনাম
ভালুকায় আতংকে আছে নাজমার পরিবারকুড়িগ্রামে গাছের ডাল পড়ে প্রান গেল কাঠঁ ব্যবসায়ীরনাচনাপাড়ায় বাস্তবে একটি ইবতেদায়ী মাদ্রাসা থাকলেও একই নামে কাগজ-কলমে দেখানো হচ্ছে দুটি।পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শিশু খাদ্য বিতরণসাপাহারে ভুয়া কবিরাজের চিকিৎসায় হাত হারাতে বসেছে সাত বছরের শিশু!পলাশবাড়ীতে জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিতনাগেশ্বরী কামিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হলেন মোহাম্মদ অাব্দুল অাউয়ালকুড়িগ্রামে মোবাইলে অনলাইনে গেম খেলায় ১১ শিক্ষার্থী আটক- মুচলেকায় অভিভাবকের কাছে হস্তান্তরডিসিসিআই’র আয়োজনে ” সাস্টেইনএবল রিভার ড্রেজিং: চ‍্যালেঞ্জেস এন্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড ” শীর্ষক অনলাইন আলোচনা সভায় নৌ প্রতিমন্ত্রীখানসামায় লকডাউন বাস্তবায়নে চলছে এসিল্যান্ড এর বাজার মনিটরিং ও ভ্রাম্যমাণ অভিযান

গাইবান্ধায় করোনা আক্রান্ত বেড়ে ১ হাজার ৯২৪, নতুন শনাক্ত ১৯

আল কাদরি কিবরিয়া সবুজ, (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:-
সাধারণ ছুটি, এলাকাভিত্তিক রেডজোন, কঠোর বিধি-নিষেধ, নিরাপদ শারীরিক দুরত্ব, স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনসহ নানান কৌশল বা পদক্ষেপ কোন কিছু কাজে আসছে না। গত পনের মাসেও রাশ টানা যায়নি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। বরং সময়ের সাথে পুরোনো চেহারায় ফিরছে জীবনযাত্রা, কমছে মানুষের সতর্কতাও। প্রায় দিনই শনাক্তের সংখ্যা ভাঙছে আগের রেকর্ড। যত দিন যাচ্ছে ততই লম্বা হচ্ছে করোনা পরীক্ষার লাইন। তবুও সময়ের সাথে মানুষের সতর্কতায়ও ভাটা পড়েছে। সংক্রমন, সুস্থ্য আর প্রাণহানীর সংখ্যা এখন যেন স্রেফ পরিসংখ্যান।গাইবান্ধায় প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিনই যেন নতুন নতুন রেকর্ড গড়ছে কোভিড- ১৯।

গত ২৪ ঘণ্টায় বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) জেলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ জন। সব মিলিয়ে গাইবান্ধায় আক্রান্ত বেড়ে ১ হাজার ৯২৪ এ পৌঁছলো, এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২০ জনের। তবে করোনার সংক্রমণের মধ্যেই আশার আলো এর সুস্থতার সংখ্যা।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে, এ পর্যন্ত জেলায় ১ হাজার ৭৮৪ জন মানুষ সুস্থ হয়ে উঠেছেন ওই রোগ থেকে। জেলায় করোনাজয়ীদের মধ্যে গাইবান্ধা সদরে ৭৩২ জন, সুন্দরগঞ্জে ১১৮ জন, সাদুল্লাপুরে ১৩২ জন, গোবিন্দগঞ্জে ৪১১ জন, সাঘাটায় ১২৯ জন, পলাশবড়ীতে ১৪৭ জন ও ফুলছড়িতে ১১৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আক্রান্ত ১৯ জনের মধ্যে সদরে ৬ জন, গোবিন্দগঞ্জে ৬ জন, ফুলছড়িতে ৩ জন, সুন্দরগঞ্জে ২ জন এবং সাদুল্লাপুর উপজেলায় ২ জন রয়েছেন। জেলার ৭ উপজেলায় এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ১ হাজার ৯২৪ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় সর্বাধিক ৭৮৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া গোবিন্দগঞ্জে ৪৪৩, পলাশবাড়ীতে ১৫৭, সাদুল্লাপুরে ১৫৪, সাঘাটায় ১৩৩, সুন্দরগঞ্জে ১২৬ এবং ফুলছড়ি উপজেলায় ১২৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন।গাইবান্ধায় বর্তমানে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে ১২০ জন বিভিন্ন আইসোলেশনে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এরমধ্যে ৪৭ জন গাইবান্ধা সদরে, সুন্দরগঞ্জে ৭ জন, সাদল্লাপুরে ২০ জন, গোবিন্দগঞ্জে ২৮ জন, সাঘাটায় ৪ জন, পলাশবাড়ীতে ৫ জন ও ফুলছড়িতে ৯ জন।জানা গেছে, এখন পর্যন্ত জেলায় মোট ২০ জন করোনা আক্রান্তরোগী মারা গেছেন। এরমধ্যে গোবিন্দগঞ্জে ৪ জন, সদরে ৭ জন, সাদুল্লাপুরে ২ জন, পলাশবাড়ীতে ৫ জন এবং সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গাইবান্ধা সিভিল সার্জন ডা. আ.ম. আখতারুজ্জামান জানান, গাইবান্ধায় প্রতিদিন বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় (বুধবার) করোনা ভাইরাসে নতুন করে ১৯ জন শনাক্ত হয়েছেন। তিনি বলেন, জেলায় করোনা নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনা বৃদ্ধির পাশাপাশি আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন করা হচ্ছে। হাসপাতালে করোনা রোগীর জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান তিনি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো