English|Bangla আজ ২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার রাত ৪:৫৪
শিরোনাম
লক্ষ্মীপুর-২ সংসদ উপনির্বাচন: নৌকার প্রার্থীর বিজয়পত্নীতলায় সরকারি নির্দেশনা না মানায় ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানাপলাশবাড়ীর হোসেনপুর ইউনিয়নে ভিজিডি কার্ডধারীদের মাঝে চাল বিতরণনরসিংদীতে পলাশের ডাংগা ইউনিয়নে আ.লীগ প্রার্থী ও গজারিয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর জয়লাভতাহিরপুর অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায় এক লক্ষ টাকা জরিমানাসিএমপি’র স্কুল এন্ড কলেজকে নিটল মটরস লিমিটেড কর্তৃক ০১টি পরিবহন বাসের চাবি সিএমপি পুলিশ কমিশনার মহোদয়কে হস্তান্তর অনুষ্ঠানকুমিল্লা সদরের উঃকালিয়াজুরী কোড়ের পাড়ের রাস্তাটি আবাও দখল মুক্তদাউদকান্দিতে স্বামীকে ভিডিও কলে রেখে স্ত্রী’র আত্মহত্যা!একটু মাথা গোঁজার ঠাঁই খোঁচ্ছে রোকিয়ারায়পুরে পুকুরে ডুবে এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত পরিদর্শন করেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান

পারভেজ, কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ

কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত, মৎস্য বন্দর মহিপুরের খাপড়াভাঙ্গা নদী, সোনাতলা এবং আন্ধারমানিক নদী পরিদর্শন করেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড.মুজিবুর রহমানের হাওলাদার । দেশের সকল নদ-নদী রক্ষায় স্থাপনা উচ্ছেদের কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের অংশ হিসেবে তিনি কুয়াকাটায় এসেছেন। সোমবার কলাপাড়া উপজেলা প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন।

উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে কলাপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম রাকিবুল আহসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার।সভায় ড. মুজিবুর রহমান বলেন, কলাপাড়ার আন্ধারমানিক নদী, সোনাতলা নদী এবং খাপড়াভাঙ্গাসহ সকল নদীর তীর রক্ষা করতে হবে। কলাপাড়া হচ্ছে উন্নয়নশীল একটি স্থান।

এখানে নদীর তীরে পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন হোক, পরিবেশ বান্ধব ও ২০১৩ সালের পানি আইনের অধিনের আইনকানুন রক্ষা করে উন্নয়ন হোক। নদীর জমি কাউকে কেউই দিতে পারে না এবং অতি শীগ্রই আইনি সকল জটিলতা নিরসন করে বীচের পরিশে সুন্দর করার কল্পে স্থানীয় সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।

কলাপাড়ার নদী রক্ষায় স্থানীয় প্রশাসনকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের পরামর্শ প্রদান করা হয় সভায়। মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশন এর সার্বক্ষনিক সদস্য (ভূতপূর্ব অতিরিক্ত সচিব) মো. আলাউদ্দিনসহ সরকার, কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনিবুর রহমান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) অনুপ দাস, কুয়াকাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি এ এম মিজানুর রহমান বুলেট, বিভিন্ন দপ্তরের উধ্বর্তন কর্মকর্তাগণ এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা নদ-নদী এবং খাল রক্ষার গুরুত্বপূর্ণ মতামত ব্যক্ত করেন।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো