English|Bangla আজ ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার সকাল ১০:৩৭
শিরোনাম
কুড়িগ্রামে সেকেন্দার বীজ হিমাগারে নতুন আলু সংরক্ষনে দোয়া ও মিলাদগাইবান্ধায় জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিতখানসামায় সরক দুর্ঘটনায় মটর সাইকেল আরোহীর মর্মান্তিক মৃত্যু।ঠাকুরগাঁও নাগরিক কমিটির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিতকুড়িগ্রামে রাস্তা সংস্কার কাজের উদ্বোধন করলেন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব পনিরউলিপুরে ট্রাক চাপায় শিশুর মৃত্যুবঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে লাউডোব ইউনিয়ন আ’লীগের আলোচনা সভা:নবীনগরে মুজাক্কির হত্যার বিচার চেয়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেন নবীনগর থানা প্রেসক্লাব।নওগাঁয় সকালে তালিকা থেকে বাদ ॥ দুপুরে মৃত্যু ॥ বিকেলে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন ॥ এলাকায় আলোচনার ঝড়পলাশবাড়ীতে প্রমীলা প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত

কলাপাড়ায় লালুয়া ইউনিয়নে লালমিয়ার জীবন ভিক্ষায় চলে,তবুও জোটেনি বয়স্ক ভাতা

মোঃ পারভেজ, কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ “ মোগো কপাল পোড়া বুড়া বয়সে ভিক্ষা করি, কেউ মোগো ভাতা দ্যায় না। আর কত বয়স হইলে মোরা বয়স্ক ভাতা পামু , হাটতে পারি না,এক বেলা খাই আর দুই বেলা না খাইয়া থাকি মোরা বাইচা আছি না মইরা গেছি হেইয়া কেউ খোঁজ নেয় না।মেম্বরের ধারে গেছি হে মোগো কিছুই কয় না।

ভিক্ষা করিয়া যা পাই তা দিয়া মোরা খাই।শরীলে বল নাই। সরকার এতো কিচু দেয় মোগো কিচুই দেয় না।কান্না জনিত কন্ঠে এ কথা বলেন কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের ছোনখোলা গ্রামের ৭০ বছরের বৃদ্ধ লাল মিয়া মৃধা।জানা যায়, ছোনখোলা গ্রামের মৃত করিম মৃধার ছেলে লাল মিয়া। এক ছেলে, দুই মেয়ে ও স্ত্রী নিয়ে বেশ ভালই কাটছিল তাদের সংসার। মেয়েদের বিয়ে দেয়ার পর অনেকটা নি:স্ব হয়ে পড়েন তিনি।

বয়সের ভারে বন্ধ হয়ে যায় আয় রোজগার। ছেলে বিয়ে করে অন্যত্র চলে যায়। বেশ কিছুদিন অতিবাহিত হওয়ার পর স্ত্রীও তাকে ফেলে চলে যায়। কোন উপায়ন্ত না পেয়ে ক্ষুধার তাড়নায় নেমে পরেন ভিক্ষায়।পরে বার বার বয়স্ক ভাতার জন্য মেম্বর চেয়ারম্যানের কাছে ধর্না ধরেছেন। অনেক আকুতি মিনুতির পরেও তার ভাগ্যে যোটেনি বয়স্কভাতা।কোমর সোজা করে দাড়ানোর শক্তি নেই।

বয়সের ভারে অনেকটা নুয়ে চলতে হয় তাকে। শরীরের চামড়ায় ঘোচ পড়ে গেছে। শরীরে অনেক রোগের বাসা বেধেছে। বর্তমানে ভিক্ষা করে কোন রকম খেয়ে না খেয়ে দিনাতিপাত করছেন তিনি। বেশি দুর পর্যন্তু হাটতেও পারেননা। ভিক্ষা করে যে টাকা পান তা দিয়ে কোন রকম জোগাড় হয় দুবেলার খাবার। এক বেলা থাকেন না খেয়ে।লাল মিয়া জানান, আয় রোজগার বন্ধ হওয়ার পর পরিবারের সবাই আমাকে ছেড়ে চলে গেছে।বয়স্ক ভাতার জন্য চেয়্যারমানের কাছে গিয়েছি। কয়েকবার মেম্বরের বাড়ি পর্যন্ত গেছি।

তারা শুধু বলে হবে। মনে হয় আমি মরার পর হবে।ইউপি চেয়ারম্যান শওকত হোসেন বিশ্বাস তপন জানান, ষাট বছরের উপরে যাদের বয়স হয়েছে, তাদের নাম লিষ্ট করে ইউনিয়ন পরিষদে জমা দেয়ার জন্য ইউপি সদস্যদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আর লাল মিয়ার নাম লিষ্ট হয়েছে। আশা করছি সে বয়স্ক ভাতায় অন্তর্ভুক্ত হবে।কলাপাড়া উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মিজানুর রহমান,বয়স্ক ভাতার তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করার একমাত্র এখতিয়ার ইউনিয়ন কমিটির।

ইউনিয়ন কমিটি লাল মিয়ার নাম মিয়ার নাম অন্তর্ভুক্ত করলে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো