English|Bangla আজ ২রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার রাত ২:৩৩
শিরোনাম
পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার শিশু খাদ্য বিতরণসাপাহারে ভুয়া কবিরাজের চিকিৎসায় হাত হারাতে বসেছে সাত বছরের শিশু!পলাশবাড়ীতে জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিতনাগেশ্বরী কামিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হলেন মোহাম্মদ অাব্দুল অাউয়ালকুড়িগ্রামে মোবাইলে অনলাইনে গেম খেলায় ১১ শিক্ষার্থী আটক- মুচলেকায় অভিভাবকের কাছে হস্তান্তরডিসিসিআই’র আয়োজনে ” সাস্টেইনএবল রিভার ড্রেজিং: চ‍্যালেঞ্জেস এন্ড ওয়ে ফরওয়ার্ড ” শীর্ষক অনলাইন আলোচনা সভায় নৌ প্রতিমন্ত্রীখানসামায় লকডাউন বাস্তবায়নে চলছে এসিল্যান্ড এর বাজার মনিটরিং ও ভ্রাম্যমাণ অভিযানচাঁপাইনবাবগঞ্জে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ১, শনাক্ত ২৭বান্দরবানে টানা বর্ষণে পানিবন্দী মানুষের মাঝে খাবার পৌঁছে দিল সেনাবাহিনীচট্রগ্রাম নগরীর আগ্রাবাদে নারী ছিনতাইকারী গ্রেফতার

করিমগঞ্জে পৌর কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধি

করিমগঞ্জ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড (আশুতিয়াপাড়া ও রামনগর) কাউন্সিলর মোঃ সুমন মড়লের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ আনা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাব সূত্রে জানা যায়, বিগত ২৭ ডিসেম্বর রবিবার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের এক অভিযোগকারী করিমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত এ অভিযোগ পত্র দায়ের করেন।

অভিযোগ পত্রে বলা হয়, করিমগঞ্জ পৌরসভার উন্নয়ন প্রকল্প সমূহের মধ্যে একটি হলো ” ৩২ পৌরসভা প্রকল্প “। আর ৩২ পৌরসভা প্রকল্পের আওতাধীন পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে জনস্বার্থে কমিউনিটি টয়লেট স্থাপন কর্মসূচির আওতায় চাহিদা মোতাবেক ১নং ওয়ার্ডে ৪টি কমিউনিটি টয়লেট বরাদ্দ দেয়া হয়। ইতিমধ্যে ওয়ার্ডে কমিউনিটি টয়লেট স্থাপন কর্মসূচির বাস্তবায়ন শেষ হয়েছে। কিন্তু ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ সুমন মড়ল কমিউনিটি টয়লেট নির্মাণে ব্যাপক দূর্ণীতির আশ্রয় নিয়েছে। কাউন্সিলর স্বীয় ক্ষমতার অপব্যবহার করে, প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের যোগসাজশে, প্রকল্পের টাকায় অবৈধ উপায়ে বরাদ্দকৃত ৪টি কমিউনিটি টয়লেট এর মধ্যে ১টি কমিউনিটি টয়লেট নিজের বসত ঘরের ভেতরে স্থাপন করে ব্যক্তিগতভাবে ব্যবহার করে আসছে।

এছাড়াও কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মাদক, জুয়া, জমি দখল, সংখ্যালঘুর উপর অত্যাচারসহ নানারকম অসামাজিক কার্যকলাপের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক অভিযোগকারিরা বলেন, কাউন্সিলর সুমন মড়ল হচ্ছে আন্তঃজেলা জুয়া সম্রাট। তার আয়ের বড় একটা অংশ আসে জুয়ার আসর থেকে। কাউন্সিলর হওয়ার আগে সে ছিল একজন পেশাদার জুয়ারি আর কাউন্সিলর হয়ে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে তার নিজেস্ব পেটুয়া বাহিনী দিয়ে করিমগঞ্জের বিভিন্ন জায়গায় জুয়ার আসর বসায়। তার কারণে অনেকে আজ সর্বশান্ত হয়ে এলাকা ছেড়েছে।

এ ব্যাপারে করিমগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তসলিমা নুর হোসেন বলেন, কাউন্সিলর মোঃ সুমন মড়লের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র পেয়েছি। আমরা এ অভিযোগের সঠিক তথ্য-প্রমাণের মাধ্যমে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

কাউন্সিলর মোঃ সুমন মড়লের সাক্ষাত না পাওয়া ও তার মোবাইল বন্ধ থাকায় অভিযোগের সত্যতা সম্পর্কে কিছুই জানা যায়নি।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো