English|Bangla আজ ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার রাত ৩:১৪
শিরোনাম
কুমিল্লা দেবীদ্বার মুক্ত দিবসে ফ্রি রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও মাস্ক বিতরননাইক্ষ‌্যংছড়ি উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ন-আহ্বায়ক(১) মনোনিত হয়েছেন শাহনেওয়াজ চৌধুরীযুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির জন্মবার্ষিকীতে আগৈলঝাড়ায় দোয়া ও মোনাজাতগোবিন্দগঞ্জে চা দোকানীর গলাকাটা লাশ উদ্ধারপলাশবাড়ী প্রেসক্লাবের নব-নির্বাচিত কমিটির দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিতকেশবপুরে শহীদ শেখ ফজলুল হক মনি এর ৮১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিতকেশবপুরে সাবেক মেম্বারের নের্তৃত্বে ভ্যানচালকের বসতবাড়ি ভাঙচুরসহ দখলের অভিযোগরুহিয়ায় এতিমখানায় শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন- মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি ফাউন্ডেশন।নারায়ণগঞ্জ কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের অভিযানে চুরি হয়ে যাওয়া পিক-আপ উদ্ধার আটক-২তারাকান্দা উপজেলায় মাদকের বিরুদ্ধে সাড়াশি অভিযানে ১৫০ পিস ইয়াবা টেবলেট সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

আমার জীবনীশক্তি আমার বাবা, শুভ জন্মদিন বাবা

মোঃ নাসির চৌধুরী তানভীর

‘বাবা’কে নিয়ে আমাদের সংস্কৃতিতে খুব বেশি আদিখ্যেতা নেই। বাবা মানে দূরের মানুষ। সংসারের রাশভারী, নামজাদা মেহমান। তাঁকে পাতলা পর্দার মতো ঘিরে থাকে ভয়, রাগ, শাসন আর গাম্ভীর্য। আবার কীভাবে যেন তাঁর মধ্যেই খুজে পাওয়া যায় এক আকাশ নির্ভরতা আর একরাশ নিরাপত্তার অনুভূতি। তিনি ভালোবাসেন ঠিকই, স্নেহও করেন, কিন্তু সবই যেন সীমিত মাত্রায়। বাবার সঙ্গে সন্তানের সম্পর্কে মিশে থাকে খানিকটা দূরত্ব, খানিকটা সংকোচ, খানিকটা ভীতি মেশানো শ্রদ্ধা। বলছি, আগের দিনের বাবাদের কথা।

আজ ১০ জুলাই আমার বাবার ৭২ তম জন্মদিন। শুভ জন্মদিন বাবা। আমি আমার বাবাকে তাঁর ভাল মন্দ (একটু রাগ বেশী) সব মিলিয়ে অনেক অনেক ভালবাসি। আমার বাবা আমার দেখা শ্রেষ্ঠ মানুষদের মধ্যে একজন। তিনি সারাটা জীবন অত্যন্ত স্বচ্ছতার ও পরিশ্রমের সাথে জীবনটা অতিবাহিত করছেন।

সেই প্রথম আমার অক্ষর দেখা। ভালো করে বুঝিও না অথচ কি এক আনন্দে,বিস্ময়ে আমি সেগুলি ছুঁয়ে ছুঁয়ে দেখেছি। এরকম আরো কত বিস্ময়,কত অজানাকে প্রথম জেনেছি তোমার হাত ধরে ! বন্ধুর মত করে শিখিয়েছো “বড়লোক না বড়মাপের মানুষ হওয়াটাই সত্যিকারের স্বার্থকতা জীবনে।”যখন একটু একটু পড়তে শিখেছি তখন আমার হাতে তুলে দিয়েছো বই।কত মজার মজার গল্প,ছবি -যেন স্বপ্নের একটা জগৎ। সেইসাথে বেড়েছে জানার পরিধি।

এইভাবে বাবা তোমার সঙ্গ,মমতা,শিক্ষা,অনুপ্রেরণা,আদর্শ পরতে পরতে অনুভব করি নিজের ভেতর। তুমি শুধু আমার বাবা-ই না,আমার মা,আমার বন্ধু,আমার শিক্ষক,আমার জীবনের দিকনির্দেশক।

‘সংসারে পিতা-পুত্রের এই যে অপরূপ ভালোবাসা, এই যে বন্ধন, তা যেমন নির্মল, তেমনি নিঃস্বার্থ আর পবিত্র। কোথা থেকে যে বাবার জন্য এত মায়া, এত ভালোবাসা, এত টান তৈরি হয়েছে বুঝতে পারি না। শুধু বুঝি বাবা আমার পরম প্রিয় বন্ধু। আমার অনুপ্রেরণা। আমার আত্মবিশ্বাস।

আমার ছেলেবেলায় আমার মায়ের চাইতে বাবার সাথে অনেক বেশী সখ্যতা ছিল। মা মোটামোটি শাসনকারী রোল প্লে করতেই মনে হয় বেশী পছন্দ করতেন, আর বাবা তার সদা হাস্যজ্জল আর বন্ধুসুলভ স্বভাব দিয়ে খুব সহযেই আমার অনেক বেশী কাছে আসতে পেরেছিলেন। মনে আছে মা সারাদিন অনেক চেঁচামেচী করেও পড়াতে বসাতে পারে নি, তখন রাতের বেলায় বাবার একটা কথায় কেন যেন সুর সুর করে বই নিয়ে বসে গিয়েছিলাম, নাহ, আমার বাবা কে এতোটুকু ভয়ও আমি কক্ষন পাইনি। তারপরও বাবার ব্যাক্তিত্বে, তার কথায়, তার কন্ঠে কিছু একটা ছিল। এটাকে কমান্ডিং বললেও ভুল হবে। আমার বাবা একাধারে আমার বন্ধু ও আমার গাইড। জীবনের যত বড়ই সমস্যায় পড়েছি, যেকোন জটিলতায় বাবার সাথে নির্দ্বিধায় আলোচনা করতে স্বাছ্যন্দ্য বোধ করেছি। এবং আমার কখনও মনে পরে না বাবা তার নিজস্ব সিদ্ধান্ত আমার উপর চাপিয়ে দেবার চেষ্টা করেছে। কিন্তু তার গাইডলাইনটা এমন ছিলো যে ভালো খারাপ দুই দিক সমানভাবে আলোচনা করতেন আর সবসময় আমাকেই উদবুদ্ধ করতেন নিজের সিদ্ধান্ত নিজেকেই নিতে।

আমার বাবা চিরকালই অপ্রকাশিত একজন মানুষ ! কাউকে যখন হেঁটে চলে বেড়াতে দেখি, তখন তার শরীর অভ্যন্তরে রক্তের প্রবহমানতার কথা যেমন, অদেখা হলেও জানি, আছে। তেমনি ভালোবাসা, স্নেহ, মমতা, এইসব অনুভূতিগুলোকে আমার বাবা খুব যেন যত্ন করেই চাপা দিয়ে রেখেছেন। প্রকাশিত হতে দেন নি ! আর, এতই স্বতঃস্ফুর্ত সেই অপ্রকাশ, সেটাকেই স্বতঃসিদ্ধ বলে জেনেছি । আমি জানি যাই ঘটুক, বাবাকে আমি পাশে পাব সব সময়, দুঃখে-সুখে-বিপদে-আনন্দে। এই অনুভূতিটাই আমাকে একটা নিরাপত্তা আর নির্ভরতার বোধ দেয়। দেয় আত্মবিশ্বাস।

বাবা,আমি তোমাকে অনেক অনেক ভালবাসি। কষ্ট হচ্ছে, তোমার ৭২ তম জন্মদিনে তুমি আমাদের পাশে নেই। ওপারে ভালো থাকো বাবা।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো