English|Bangla আজ ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার সন্ধ্যা ৭:৩০
শিরোনাম
কালীগঞ্জে এতিমদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন চুমকি এমপি।সাপাহারে খোট্টা পাড়া সরিষাভাঙ্গা মেশিনের ফিতার সাথে জড়িয়ে যুবকের মৃত্যু।বান্দরবানে ১৫০ শিক্ষার্থীকে দেয়া হলো বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা সহায়ক বইবান্দরবানে ত্রিমুখী সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৬মুরাদনগরে মনিরুল আলম দিপুর উদ‍্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণবিদ্যুতপৃষ্টে চাচা ভাতিজার মৃত্যুতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন।ইউএনও একরামুল ছিদ্দিকমুজিববর্ষে পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার বাড়ি পাচ্ছেন ১১৪ টি ভূমিহীন পরিবারশ্রীমঙ্গলে আগামী কাল গৃহহীনদের জন্য নবনির্মিত ৩শত ঘর উদ্বোধন করা হবে আগামীকালপিএইচডি কর্তৃক চরফ্যাশনে মা ও কিশোর-কিশোরী সমাবেশ অনুষ্ঠিতচিলমারীতে জ্বালানী তেল সরবরাহ এবং ডিপো স্থাপনের দাবীতে মানববন্ধন

বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেল সিলেট শহরবাসী

মাহমুদ পারভেজ খান সিলেট জেলা প্রতিনিধিঃ

ছিল না কোনো ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। বিচ্ছিন্ন করা হয়নি বিদ্যুৎ সংযোগও। ফলে ঘটলো দুর্ঘটনা। তবে ভাগ্যক্রমে অল্পতেই রক্ষা পেয়েছে নগরীর নয়াসড়ক এলাকা।

সিলেট নগরীর নয়াসড়ক এলাকাস্থ মসজিদের উঁচু মিনার ভাঙা হচ্ছিল আজ সোমবার। ভাঙার সময় সেটি রাস্তার মধ্যে ধসে পড়ে। এতে দুই পথচারী আহত হন।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে মিনারটি বিদ্যুতের তার (ক্যাবল) ও খুটিসহ রাস্তায় ধসে পড়ে। এতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে নগরীর বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। মিনারটি ধসে পড়ার সময় রাস্তায় পথচারী কম থাকায় এবং বিদ্যুতের খুটি উপড়ে পড়লেও আগুন না ধরায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা মিলে।

জানা গেছে, নয়াসড়ক মসজিদের পুননির্মাণ কাজ চলছে গত কিছুদিন ধরে। সিলেট সিটি করপোরেশনের সহযোগিতায় নয়াসড়ক পঞ্চায়েত কমিটির উদ্যোগে এ কাজ চলছিল। সোমবার সিটি করপোরেশনের একটি বুলডোজার দিয়ে মসজিদের মিনার ভাঙার কাজ চলছিল। দুপুরে মিনারটি আকস্মিকভাবে ধসে পড়ে রাস্তার ওপর। ওই সময় রাস্তা দিয়ে মোটরসাইকেলে যাওয়া মোস্তাক আহমদ (৩৫) ও মোটরসাইকেলে থাকা আরেকজন মিনারের একপাশে চাপা পড়েন। এতে তারা আহত হন ও মোটরসাইকেলটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকাজ করেন। আহতদের ভর্তি করা হয় হাসপাতালে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিনারটি ভাঙার সময় কোন ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল না। এমনকি পাশেই থাকা বিদ্যুতের খুটিতে বিদ্যুৎ সংযোগও বিচ্ছিন্ন করা হয়নি। মিনারটি বিদ্যুতের খুটি নিয়ে ধসে পড়ার বিপর্যস্ত হয় বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। পরে বিদ্যুৎ বিভাগের চেষ্টায় গতকাল সন্ধ্যায় স্বাভাবিক হয় বিদ্যুৎ সরবরাহ।

এ প্রসঙ্গে বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগ সিলেটের প্রধান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার দে বলেন, পরিকল্পনাহীন কাজে দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে অনেক এলাকা বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে। বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীরা কাজ করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন।

এদিকে, ঘটনার খবর পেয়ে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে যান সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। পরে তিনি জানান, অসাবধানতাবশত মিনারটি ভেঙে রাস্তায় পড়ে যায়। এ ধরনের দুর্ঘটনা ঠেকাতে সংশ্লিষ্টদের ভবিষ্যতে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো