English|Bangla আজ ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার সন্ধ্যা ৭:২০
শিরোনাম
কালীগঞ্জে এতিমদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন চুমকি এমপি।সাপাহারে খোট্টা পাড়া সরিষাভাঙ্গা মেশিনের ফিতার সাথে জড়িয়ে যুবকের মৃত্যু।বান্দরবানে ১৫০ শিক্ষার্থীকে দেয়া হলো বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা সহায়ক বইবান্দরবানে ত্রিমুখী সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৬মুরাদনগরে মনিরুল আলম দিপুর উদ‍্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণবিদ্যুতপৃষ্টে চাচা ভাতিজার মৃত্যুতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন।ইউএনও একরামুল ছিদ্দিকমুজিববর্ষে পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার বাড়ি পাচ্ছেন ১১৪ টি ভূমিহীন পরিবারশ্রীমঙ্গলে আগামী কাল গৃহহীনদের জন্য নবনির্মিত ৩শত ঘর উদ্বোধন করা হবে আগামীকালপিএইচডি কর্তৃক চরফ্যাশনে মা ও কিশোর-কিশোরী সমাবেশ অনুষ্ঠিতচিলমারীতে জ্বালানী তেল সরবরাহ এবং ডিপো স্থাপনের দাবীতে মানববন্ধন

বান্দরবানে নানা আয়োজনে পালিত হলো শান্তিচুক্তির ২২তম বর্ষপূর্তি

তপন চক্রবর্তী বান্দরবান জেলা প্রতিনিধিঃ

বান্দরবানে পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি’র অগ্রযাত্রার ২২তম বর্ষপূর্তি উদযাপন উপলক্ষ্যে “ঐক্যের মাঝে শান্তি পাই, পাহাড়ী বাঙ্গালী ভাই ভাই” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বান্দরবান জেলা পরিষদ ও সেনা রিজিয়নের যৌথ উদ্যোগে পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তির ২২তম বর্ষপূর্তি পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে সোমবার (২ ডিসেম্বর ) সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গন থেকে একটি র‌্যালী বের করা হয়।

র‌্যালীটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে সদরস্থ রাজার মাঠে এসে শেষ হয়। র‌্যালী শেষে রাজার মাঠে সেনাবাহিনীর উদ্যোগে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা, শিক্ষার্থীদের বই বিতরণ ও দুঃস্থদের মাঝে কম্বল বিতরণের আয়োজন করা হয়। পরে এই উপলক্ষ্যে রাজার মাঠে পার্বত্য জেলা পরিষদের আয়োজনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় সভায় পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সি য়ং ম্রো’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান ওতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৬৯ পদাতিক ব্রিগেডের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খন্দকার মোঃ শহিদুল ইমরান এএফডব্লিউসি, পিএসসি।

বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার, পার্বত্য জেলা পরিষদের মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম কাউছার, পার্বত্য আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য মোঃ শফিকুর রহমান, পৌর মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ.কে.এম জাহাঙ্গীর, সিভিল সার্জন অং সুই প্রু, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষীপদ দাস, মোজাম্মেল হক বাহাদুর, ফিলিপ ত্রিপুরা’ সেনাবাহিনী,পুলিশ,বিজিবি সদস্যগন সহ সরকারী-বেসরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ১১ ক্ষুদ্রনৃ গোষ্ঠীর প্রতিনিধি গন উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, দীর্ঘ দুই যুগ ধরে পার্বত্য চট্টগ্রামের বিরাজমান সমস্যা তার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে শান্তি চুক্তি সম্পাদনের মাধ্যমে অবসান হয়ে ছিল। যার ফলে এই শান্তি চুক্তিকে বিভিন্ন রাষ্ট্র স্বাগত জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পুরস্কৃত করা হয়ে ছিল। তারা আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নসহ সমস্ত বিষয়ে প্রধান মন্ত্রী খুবই আন্তরিক।

অপরদিকে বান্দরবান উপজাতীয় সুশীল সমাজ,পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও বাংলাদেশ মারমা স্টুডেন্টস কাউন্সিল এর আয়োজনে সকাল সাড়ে ১০টায় বান্দরবান সদরস্থ মাস্টার গেস্টহাউজের সম্মেলন কক্ষে শান্তি চুক্তি দিবস উপলক্ষ্যে একটি আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়।

এতে বক্তারা বলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তির সবকটি শর্ত সরকার যতদিন বাস্থবায়ন না করবে আমাদের আন্দোলন চলমান থাকবে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো