English|Bangla আজ ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার ভোর ৫:২১
শিরোনাম
সচেতনতা বার্তা নিয়ে পায়ে হেঁটে ৭০ কিঃমিঃ পথ পাড়ি দিল নোবিপ্রবি শিক্ষার্থী রিয়াদ!ফরদাবাদ ইউপি নির্বাচন: আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ইয়াকুব মাস্টারকুড়িগ্রামে কেমিস্টস্ সমাবেশ ও পরিচিতি সভাআত্রাইয়ে ফসলি জমিতে পুকুর খনন, খনন বন্ধে অভিযোগ: প্রশাসন নিরবগোবিন্দগঞ্জে অটোভ্যান চালক হামিদুল হত্যাকান্ডের ঘটনায় গ্রেফতার-৩পলাশবাড়ীতে মাসিক আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিতগংগাচড়ায় পিপিআর রোগ নির্মূলে বিনামুল্যে টিকা প্রদানের উদ্ধোধনআলোচিত সেই শিশু রফিকুলের দায়িত্ব নিলেন ইউপি চেয়ারম্যান হাসানঠাকুরগাঁওয়ে রুহিয়ায় দুই রাস্তার বেহাল দশাকুলিয়ারচরে প্রবীন আ. লীগ নেতা রমিজ উদ্দিন ভূইয়া আর নেই

বরিশালে আবারও চালের বাজার চড়া

শাহিন হাওলাদার বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

বরিশালে ও বাকেরগঞ্জে হঠাৎ করেই অস্থিতিশীল হয়ে উঠেছে চালের বাজার। আর এর জন্য ধানের সরবরাহ কম থাকাকে দায়ী করেছেন ব্যবসায়ীরা। বিশেষ কোনো কারণ বা অজুহাত ছাড়াই প্রকারভেদে বস্তাপ্রতি চালের দাম বেড়েছে ২০০ থেকে ২৫০ টাকা পর্যন্ত।

বিক্রেতারা একে অপরকে এর জন্য দায়ী করছেন। আর পাইকারি ব্যবসায়ীরা দুষছেন ধানের সরবরাহ কম থাকাকে।

শুক্রবার (24 জানুয়ারি) সকালে জেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, খুচরায় প্রকারভেদে চালের দাম কেজি প্রতি বেড়েছে ১-৩ টাকা। তবে সবচেয়ে বেশি বেড়েছে পোলাও চালের দর। এ চালটির দাম বেড়েছে কেজি প্রতি ১০-২০ টাকা। স্থানীয় বাজারগুলোতে মোটা স্বর্ণা ২ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ২৮ টাকায়, চিকন স্বর্ণা ২ টাকা বেড়ে ৩০ টাকায় এবং আঠাস ও জিরা চাল বিক্রি হচ্ছে ৩ টাকা বেড়ে ৩৮ টাকা কেজি দরে।

খুচরা ব্যবসায়ী শিবু সের্ন 71 বাংলা টিভি বলেন, পাইকারি বাজারে চালে দাম বেশি। তাই বেশি দামে চাল কেনার কারণে খুচরা বাজারে দাম বাড়িয়ে বিক্রি করতে হচ্ছে।

অন্যদিকে জেলার অন্যতম পাইকারি ব্যবসায়ী ‘মের্সাস বাবুল ট্রেডাস’র মালিক বাবুল খান 71 বাংলা টিভি বলেন, চৈত্র মাসে যে ধানটি ওঠে সে ধানটি শেষের দিকে। ধানের সরবরাহ কম থাকায় আমাদের ধান কিনতে হচ্ছে বেশি দামে। ফলে চালের দাম গত ২ মাস থেকেই বাড়তির দিকে।

গত ২ মাসে এ পর্যন্ত সর্ব্বোচ্চ বস্তাপ্রতি ২০০ থেকে ৩০০ টাকা বেড়েছে দাবি করে তিনি আরও বলেন, গত তিনদিনে দাম বৃদ্ধির হারটি একটু বেশি ছিল। বরিশালে বাকেরগঞ্জ এক সপ্তাহ আগে বস্তাপ্রতি (৫০ কেজি) মোটা চাল বিক্রি হয়েছে ১ হাজার ৭০০ টাকা, যা বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৯০০ টাকা। আর চিকন চাল ১ হাজার ৯০০ টাকা থেকে বেড়ে বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার ১০০ টাকা।

এছাড়া মিনিকেট চালের দাম বস্তাপ্রতি ১ হাজার ৯০০ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ২ হাজার ২০০ টাকা। পোলাও এর নতুন চাল কেজি প্রতি ৮০ টাকা থেকে বেড়ে ৯০ টাকা এবং পুরাতন পোলাও এর চাল কেজি প্রতি ৯০ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ১১০ টাকা।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো