English|Bangla আজ ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার বিকাল ৪:৫৩
শিরোনাম
রংপুর জেলা আ’লীগ নেতা ওয়াজেদুল ইসলামের মাতা আর নেইফুলপুর শুভসংঘের নয়া কমিটির যাত্রা শুরু, আশরাফ সভাপতি, পান্না সাধারণ সম্পাদকনরসিংদীতে ঢিলেঢালা লকডাউনচিরিরবন্দরে নির্দেশ অমান্য করে দোকান খোলায় ১০ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানাফেসবুক গ্রুপ প্রিয় খানসামা’র উদ্যোগে গরীব পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম শুরুপহেলা বৈশাখ উপলক্ষে সাপাহারে রোগীদের মাঝে উন্নত খাবার পরিবেশনকরোনা কি পৃথিবীতে দুর্ভিক্ষের হাতছানি দিচ্ছে?ইউএনও-এসিল্যান্ডের নজরদারী- নান্দাইলে কঠোরভাবে লকডাউন পালনমুরাদনগরে খেলার মাঠকে বাঁচিয়ে রাখতে মানবিক আবেদন জানিয়ে মানববন্ধনলক্ষ্মীপুরে মেশিনে কাঁটা পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

বরগুনায় মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলা!

মোঃ সানাউল্লাহ, বরগুনা প্রতিনিধিঃ

জমি নিয়ে বিরোধেদের জেরে বরগুনার সদর উপজেলার কলেজ সড়কের বাসিন্দা আবদুস সোবাহান নামের একজন মুক্তিযোদ্ধার ওপর হামলা অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায় বৃহস্পতিবার বিকালে কলেজ সড়কের শ্যামলী হলের পাশ্চিম পাশে তাঁর মালিকানাধীন জমিতে কাজ করতে গেলে প্রতিপখ শাহীন বাঁধা দেয়। মাগরিবের নামাজ শেষে বাসায় ফেরার পথে শাহীন ও তার ছেলে সাজ্জাদ হোসেন জ্যাকি, ভাইয়ের ছেলে জয়, বোনের ছেলে রিমনসহ বেশ কয়েকজন সোবাহানকে লাঞ্চিত করে। এসময় স্থানীয়রা বাঁধা দিতে আসেলে মিজান ও সবুজ নামের দুজন আহত হয়। পরে তাদের চিকিৎসার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধা সোবাহান বলেন, শাহীন সিকদার পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া এলাকার কুখ্যাত রাজাকার চান মিয়ার ছেলে। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় জেলার পিস কমিটির চেয়ারম্যান খলিলের ঘনিষ্ঠ সহযোগী হিসেবে পরিচিত ছিল। পাক আর্মির ক্যাম্প থেকে পালিয়ে যাওয়া ৩০জন নারী পুরুষকে এই চান মিয়া ধরিয়ে দিয়েছিল।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে জুলফিকার শাহীনের ছেলে সাজ্জাদ হোসেন জ্যাকি সিকদার বলেন, আবদুস সোবাহান জোর করে বিরোধীয় সীমানায় কাজ করছিলেন। আমরা তাকে কাজ করতে নিষেধ করেছি।

বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধা সোবাহান বাদি হয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত পূর্বক আইন আনুই ব্যাবস্থা গ্রহন করবো।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো