English|Bangla আজ ১লা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার সন্ধ্যা ৬:৪৩
শিরোনাম
নওগাঁয় পরকীয়ার জেরে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে নারীর হাতের আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন ॥ যুবক আটকপলাশবাড়ীতে জাতীয় বীমা দিবস পালিতগোবিন্দগঞ্জে স্বর্ণ ব্যবসার আড়ালে স্বর্ণ বন্ধকীর নামে রমরমা সুদের ব্যবসাবান্দরবানে বিভিন্ন ৯টি মামলার জব্দকৃত মাদকদ্রব্য ধ্বংসপলাশে নিখোঁজ কিশোর হত্যা মামলায় গ্রেফতার ২নওয়াপাড়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে ভ্যান চালকের মর্মান্তিক মৃত্যুরাণীনগরে বাঁশ বোঝাই ভটভটিকে সহযোগীতা করতে গিয়ে প্রাণ গেল ময়েনেরভূঞাপুর থানা পুলিশের সহায়তায় ঠিকানা খুঁজে পেল হারিয়ে যাওয়া ৫ ছাত্রবীরমুক্তিযোদ্ধা তারা মৃধার বাড়ি-ঘর ভাঙচুরের প্রতিবাদে ভূঞাপুরে মানববন্ধননাগেশ্বরীতে জাতীয় বীমা দিবস ও বঙ্গবন্ধু বীমা মেলা অনুষ্টিত

প্রেমিকের হাত ধরে দুই সন্তানের মা উধাও

এম এ সালাম রুবেল-ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমিকের হাত ধরে দুই সন্তানের মা উধাও,এ অবস্থায় অসহায় ভুক্তভোগীর পরিবার। গত মঙ্গলবার ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ৬ নং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের মাদারগঞ্জ কাঠালডাঙ্গী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, মাদারগঞ্জ কাঠালডাঙ্গী গ্রামের বাসিন্দা মৃত. ঘীর প্রসাদের মেয়ে বিশিনী রাণী এর সাথে ১২ বছর আগে পার্শ্ববর্তী বালিয়া ইউনিয়নের তুরুকপথা গ্রামের মৃত. বিশু চন্দ্র রায়ের ছেলে সাথে জগেন চন্দ্র রায়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে জগেন তার শশুর বাড়ীতে থাকতো।

হঠাৎ করে আমরা শুনতে পারি পাশের গ্রামের লক্ষী চন্দ্র রায়ের সাথে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছে। এ বিষয়ে বিশিনী রাণীর স্বামী জগেন বলেন, আমাদের বিয়ে হওয়ার ১২ বছর হইলো। আমার বাবা, মা না থাকায় আমার শশুর বাড়ীতে থাকি। আমার শাশুড়ী কিছুদিন আগে মারা গেছে। এ বাড়ীতে আমরা ছাড়া আর কেউ নেই। আমি আমার বউকে খুব ভালোবাসতাম। আমাদের সংসার খুব ভালো ভাবেই চলতেছিলো। আমাদের সংসারে দুই ছেলে সন্তান আছে। এ ঘটনায় আমার দুই ছেলেকে নিয়ে আমি এখন অসহায় হয়ে পড়েছি।

জগেন আরো অভিযোগ করে বলেন, লক্ষী চন্দ্র রায় আমার বউকে লোভ দেখিয়ে,ভুল বুঝিয়ে আমার সংসার নষ্ট করার জন্য পালিয়ে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছে। তার ভাই এভাবে অনেক পরিবার নষ্ট করেছে। তার ভাই এখন পলাতক। আমি এখন আমার দুই সন্তানকে নিয়ে বিপদে পড়ে গেছি। আমার যতটুকু সম্বল টাকা ও পঁয়সা ছিলো তা নিয়ে পালিয়ে গেছে। আমি সরকারের কাছে ও প্রশাসনের কাছে বিচার চাই। বিশিনী রাণীর বড় ছেলে মানিক চন্দ্র(৮) বলেন,আমি আমার মাকে চাই। আমি আমার মাকে ছাড়া বাঁচবো না। লক্ষী নামে লোকটির বিচার চাই।

জগেনের স্ত্রী বিশিনী রাণী বলেন,আমি লক্ষীকে ভালোবাসি ৩ বছর থেকে আমরা প্রেম করি তাই বিয়ে করেছি।
অভিযুক্ত লক্ষী চন্দ্র রায় আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, আমি তাকে ভালোবাসি তাই বিয়ে করেছি। আপনাদের কিছু করার থাকলে করেন।৬ নং আউলিয়াপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম মুঠো ফোনে বলেন,বিষয়টি আমি জানি, জগেন আমার কাছে অভিযোগ করেছে।

আজকে সন্ধ্যায় বসার কথা আছে। উল্লেখ্য, লক্ষী চন্দ্র রায় (৪৫) একই গ্রামের মৃত. রুপ নারায়ণের ছেলে হালচাষ ব্যবসায়ী। তার সংসারে বউ ও দুই ছেলে আছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো