English|Bangla আজ ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার দুপুর ২:০০
শিরোনাম

পীরগাছায় ছাত্রীর বাবাকে পেঠালেন প্রধান শিক্ষক

মোঃ লাভলু মিয়া রংপুর প্রতিনিধিঃ

রংপুরের পীরগাছায় এবার শিক্ষার্থী নয়, অভিভাবককে পেটালেন প্রধান শিক্ষক। মেয়ের এসএসসি পাশের শিক্ষা সনদ চাওয়ায় নিতাই চন্দ্র শীল নামে এক অভিভাবককে চড়-থাপ্পর ও শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করেন উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের তেয়ানী মনিরাম দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুর রহমান। আর এ ঘটনাটি ঘটেছে আজ মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় ওই স্কুল প্রাঙ্গণে।

এ ব্যাপারে নির্যাতনের শিকার ওই অভিভাবক উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি অভিযোগ দিয়েছেন।
জানা গেছে, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার উত্তর ফলগাছা গ্রামের নিতাই চন্দ্র শীলের মেয়ে গীতা রানী ২০১৪ সালে কান্দি ইউনিয়নের তেয়ানী মনিরাম দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাশ করেন। সম্প্রতি তার শিক্ষা সনদের বিশেষ প্রয়োজন হওয়ায় তার পিতাকে সনদটি আনতে গত ১০ নভেম্বর বিদ্যালয়ে পাঠান।

এসময় প্রধান শিক্ষক মাহবুর রহমান (মতলুবর) সনদ রেজিষ্টার দেখে তাকে পরে আসতে বলেন। এরপর অভিভাবক নিতাই চন্দ্র শীল বেশ কয়েক বার প্রধান শিক্ষককের কাছে গেলে তিনি বিভিন্ন তালবাহানা শুরু করেন।

আজ মঙ্গলবার সকালে ওই অভিভাবক আবারো প্রধান শিক্ষককে বিদ্যালয় সংলগ্ন দোকানে গিয়ে সনদ চাইলে তিনি অভিভাবকের নিকট এক হাজার টাকা দাবি করেন এবং বার বার আসায় অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন। এতে ওই অভিভাবক প্রতিবাদ করলে তিনি সকলের সামনে আমাকে চড়-থাপ্পর ও লাথি মারেন এবং শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করেন। পরে দোকানের অন্যান্য লোকজন এসে তাকে প্রধান শিক্ষকের হাত থেকে রক্ষা করেন।

নির্যাতনের শিকার অভিভাবক নিতাই চন্দ্র শীল বলেন, মারপিটের পর প্রধান শিক্ষক আমাকে দেখে নেয়ার হুমকি-ধামকি দেন। আমি বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এ ব্যাপারে পীরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক মাহবুর রহমানের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি নির্যাতনের কথা অস্বীকার করেন এবং সামান্য গন্ডোগোল হয়েছে বলে জানান।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো