English|Bangla আজ ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার সকাল ৮:১১
শিরোনাম
সাপাহারে খোট্টা পাড়া সরিষাভাঙ্গা মেশিনের ফিতার সাথে জড়িয়ে যুবকের মৃত্যু।বান্দরবানে ১৫০ শিক্ষার্থীকে দেয়া হলো বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা সহায়ক বইবান্দরবানে ত্রিমুখী সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৬মুরাদনগরে মনিরুল আলম দিপুর উদ‍্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণবিদ্যুতপৃষ্টে চাচা ভাতিজার মৃত্যুতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন।ইউএনও একরামুল ছিদ্দিকমুজিববর্ষে পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার বাড়ি পাচ্ছেন ১১৪ টি ভূমিহীন পরিবারশ্রীমঙ্গলে আগামী কাল গৃহহীনদের জন্য নবনির্মিত ৩শত ঘর উদ্বোধন করা হবে আগামীকালপিএইচডি কর্তৃক চরফ্যাশনে মা ও কিশোর-কিশোরী সমাবেশ অনুষ্ঠিতচিলমারীতে জ্বালানী তেল সরবরাহ এবং ডিপো স্থাপনের দাবীতে মানববন্ধনচিলমারীতে পাট গুদামে আগুন, লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি

নবীনগরে ফের সংঘর্ষ! পুলিশ সহ আহত ১০ ।

জহিরুল ইসলাম,জেলা সংবাদদাতা ব্রাহ্মনবাড়িয়া :

লুটপাট,বাড়িঘর ভাংচুর,অগ্নিসংযোগ,পুলিশের ২৮ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ,গ্রেপ্তার ১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ফের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।
সোমবার(১০/২) রাতে বাইশমৌজা গরুর বাজারের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে হাজির হাটি

উত্তর লক্ষীপুর,হাজির হাটি,গৌরনগর, সাতঘরহাটি ও থানাকান্দি গ্রামে ইউপি চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান ও কাউছার মোল্লার অনুসারীদের মধ্যে আবারো তুমুল সংঘর্ষ শুরু হয়েছে বলে জানা যায়।

এরই মধ্যে এলাকায় বিভিন্ন ইস্যুতে আধিপত্যকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান ও কাউছার মোল্লা গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই হামলা-মামলা অগ্নিসংযোগ, লুটপাট, বাড়িঘর ভাংচুরের মতো ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত দফায় দফায় এই দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়ে উভয় পক্ষের ৩০টি বাড়িঘর ভাংচুর অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সোমবার রাতেই নবীনগর থানার ওসি সহ পুলিশের একটি দল আক্রান্ত এলাকায় অবস্থান করেন।

তারপরও রাতে ও মঙ্গলবার সকালে পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকায় পুলিশ ২৮ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে হামলাকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

এসময় তিন পুলিশ সহ ১০ জন আহত হয়।
পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১৯ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে ও এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে উভয়পক্ষের গ্রেফতার ১৯ জন সহ অজ্ঞাত ২০০ জনকে আসামি করে নবীনগর থানায় মামলা রুজু করে।
পূলিশ আটক ১৯ জনকে মঙ্গলবার সকালে জেলা আদালতে সোপর্দ করে।

এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে, পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
ওসি রনোজিত রায় ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ২৮ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে এবং ঘটনাস্থল থেকে ১৯জনকে আটক করে। পুলিশ বাদী হয়ে মামলা রুজু করেছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

জহিরুল ইসলাম
জেলা সংবাদদাতা ব্রাহ্মনবাড়িয়া

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো