English|Bangla আজ ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার রাত ৯:০১
শিরোনাম
নান্দাইলে ক্যারাভান রোড শো উদ্বোধনকলারোয়া থানা পুলিশের অভিযানে ৩৯ বোতল ফেন্সিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটকপলাশবাড়ীতে বাঁধন ফাউন্ডেশন আয়োজিত চাইনিজ ফুটবল টূর্ণামেন্টের উদ্বোধনমামলা চলমান অবস্হায় জেনারেল হাসপাতালের নামে জমি দখলের পায়তারাভোলায় প্রতারক ও ভূমিদস্যু আবুল কালামের বিচারের দাবিকোভিড-১৯ মোকাবেলার লক্ষ্যে পাথরঘাটায় সিসিডিবি’র খাদ্য সামগ্রী, স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও কৃষি উপকরন বিতরণ।কোভিড-১৯ মোকাবেলার লক্ষ্যে পাথরঘাটায় সিসিডিবি’র খাদ্য সামগ্রী, স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও কৃষি উপকরন বিতরণ।বাংলাদেশের কনিষ্ঠ মেয়র মনির , বয়স ৩৬গাজীপুরে দুই ছিনতাইকারী গ্রেফতার মোটরসাইকেল জব্দ।ভূঞাপুরে পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে আইন শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত

দেবিদ্ধারের রাজামেহের এলাকায় সড়ক নির্মান একদিনেই উঠে গেছে কার্পেটিং

কুমিল্লা উত্তর প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা দেবিদ্বারের রাজামেহের ইউনিয়নের চুলাশ থেকে মরিচাকান্দি পর্যন্ত একটি সড়কের সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফলে সড়কটির সংস্কার কাজ শেষের একদিনের মাথায় যানবাহনের চাপায় সড়কের কার্পেটিং উঠে যেতে শুরু করায় স্থানীয়দের মাঝে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। অভিযোগ রয়েছে কাজটির দেখভালোর দায়িত্বে থাকা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের লোকজন স্থানীয়দের অভিযোগের পরেও দায়সারা ভাবে কাজটি সম্পন্ন হওয়ায় এই অবস্থা।

স্থানীয় বিভিন্ন সুত্রে পাওয়া তথ্যে জানা যায়, দেশের প্রধান জাতীয় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনার পাশেই রয়েছে জেলার দেবিদ্ধার উপজেলার সীমানা। রাজধানী ঢাকা থেকে দেবিদ্বার আসতে কুমিল্লার ময়নামতি সেনানিবাস হয়ে উপজেলা সদরে পৌঁছতে কমপক্ষে ৪০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হয়। এঅবস্থায় সময় বাঁচাতে ব্যক্তিগত যানবাহন বা সিএনজি, ইজিবাইকসহ অন্যান্য যানবাহনে করে লোকজন চান্দিনার মাধাইয়া এলাকায় নেমে বরাট হয়ে চুলাশ-মরিচাকান্দি সড়ক পথে দেবিদ্বার উপজেলা সদরে আসা-যাওয়া করে।

এই সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়াও এই পথে চলাচলকারী যানবাহনের যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদ জনদুর্ভোগ লাঘবে ২০১৯-’২০ অর্থবছরে চুলাশ থেকে মরিচাকান্দি গ্রাম পর্যন্ত সড়কটির ৩’শ মিটার অংশ সংস্কারের কাজে সম্প্রতি দরপত্র আহ্বান করে। ৩৩ লাখ টাকা ব্যায়ের কাজটি সংস্কারের দায়িত্ব পায় মাসুদ নামের এক ঠিকাদার। চলতি ফেব্রুয়ারী মাসের প্রথমদিকে কাজটি সংস্কার কাজের শুরুতে প্রথমে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করায় স্থানীয় গ্রামবাসীসহ জনপ্রতিনিধিরা এর প্রতিবাদ করে। কিন্তু ঠিকাদার কোন কর্নপাত না করে ১৫ ফেব্রুয়ারী কাজ সম্পন্ন করে ফেলে।

কাজের শেষের পর সড়কটিতে যানবাহন চলাচলের শুরু হলে অল্প সময়ের মধ্যে কার্পেটিং উঠা শুরু হয়। এতে ক্ষুব্ধ স্থানীয় বাসিন্দারা। স্থানীয় এলাকাবাসী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করে রাস্তাটি নির্মাণ করায় কাজ শেষের পরদিনই পিচসহ কার্পেটিংয়ের অংশ বিশেষ উঠে যাওয়ায় সড়কটির সংস্কার হওয়া অংশ কতদিন যানচলাচলের উপযুক্ত থাকবে সেটা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সুত্র আরো জানায়, ঠিকাদার সরকার দলীয় লোক হওয়ায় ভয়ে কেউ প্রকাশ্যে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা।

বিষয়টি জানতে চাইলে ঠিকাদার মাসুদ বলেন, শিডিউল অনুযায়ী কাজ হয়েছে, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নাম জানতে চাইলে তিনি বলেন, কাজের লাইসেন্স আমার নামে না মুরাদনগরের একজনের নাম আমার মনে নেই।
উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ শাহআলম বলেন, কাজটি এডিবি’র অর্থায়নে হয়। উপজেলা চেয়ারম্যান আমাকে কাজটির গুণগত মান নিয়ে অবহিত করেছে। আমি আজ (১৮ ফেব্রুয়ারী) মঙ্গলবার কাজটি দেখতে চুলাশ যাবো।

এদিকে দেবিদ্বার উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন সাংবাদিকদের জানান, এই রাস্তাটি বিগত সময়ে চলাচলের অযোগ্য থাকায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় মানুষদের। পরে বিভিন্ন দফতরে তদবির করে অর্থ বরাদ্দ এনেছি। কিন্তু কি কারণে কাজটি নিম্নমানের হলো সেটা খতিয়ে দেখবো।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো