English|Bangla আজ ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার সকাল ৬:২০
শিরোনাম
সাপাহারে খোট্টা পাড়া সরিষাভাঙ্গা মেশিনের ফিতার সাথে জড়িয়ে যুবকের মৃত্যু।বান্দরবানে ১৫০ শিক্ষার্থীকে দেয়া হলো বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা সহায়ক বইবান্দরবানে ত্রিমুখী সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৬মুরাদনগরে মনিরুল আলম দিপুর উদ‍্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণবিদ্যুতপৃষ্টে চাচা ভাতিজার মৃত্যুতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলেন।ইউএনও একরামুল ছিদ্দিকমুজিববর্ষে পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার বাড়ি পাচ্ছেন ১১৪ টি ভূমিহীন পরিবারশ্রীমঙ্গলে আগামী কাল গৃহহীনদের জন্য নবনির্মিত ৩শত ঘর উদ্বোধন করা হবে আগামীকালপিএইচডি কর্তৃক চরফ্যাশনে মা ও কিশোর-কিশোরী সমাবেশ অনুষ্ঠিতচিলমারীতে জ্বালানী তেল সরবরাহ এবং ডিপো স্থাপনের দাবীতে মানববন্ধনচিলমারীতে পাট গুদামে আগুন, লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি

ডিবি’র এস আই আলাউদ্দিনের দুটি অভিযানে বিপুল পরিমান মদ ও টাকা জব্দ

বদরুল আমীন, ময়মনসিংহঃ

সম্প্রতি ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা সংস্থার (ডিবি) দুটি অভিযান শহরবাসীর মাঝে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে।সমাজে অপরাধ সৃষ্টির মূল কারন হচ্ছে জুয়া ও মাদক। জেলা গোয়েন্দা সংস্থার পুলিশ বিপুল পরিমান মাদক উদ্ধার ও অনলাইনের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকার জুয়া খেলার গ্যাং এর তিন জনকে আটক করে ১২ লাখ টাকার অধিক জব্দ করেছেন। অপরদিকে রমেশ সেন রোডে অভিযান করে ১ হাজার ৪০ লিটার চুলাই মদ জব্দ করে ৪ জন গ্রেফতার করেন। দুটি অভিযানই হয় পুলিশ সুপার আহমার উদজজান এর নির্দেশনায় গোয়েন্দা সংস্থার পুলিশ পরিদর্শক শাহ কামাল আকন্দের ততবাবধানে এস আই আলাউদ্দিন বাদল অভিযান পরিচালনা করেন।
ময়মনসিংহ পুলিশ সুপার নির্দেশে পুলিশ পরিদর্শক শাহ কামাল আকন্দের ততবাবধানে এস আই আলাউদ্দিন বাদল অভিযান পরিচালনা করেন। গত শনিবার সন্ধায় বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে নগরীর জামতলা মোড় থেকে অনলাইনে জুয়া খেলা রত অবস্থায় ৩ জুয়াড়ীকে আটক করা হয়। তাদের হেফাজত থেকে ১২ লক্ষ ১১ হাজার টাকা এবং অনলাইনে জুয়া খেলায় ব্যবহৃত ০৯ টি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়। তারা দীর্ঘদিন যাবত অনলাইনে জুয়া খেলে আসছিল বলে প্রাথমিকভাবে জানা যায়। আটককৃত হলেন সজিব মিয়া (২৫) মাহফুজ (৩৭) মাহবুব করিম বাবু (৩৫)।
ময়মনসিংহ শহরের রমেশ সেন রোডের যৌনপল্লী ছিলো অবৈধ মদ মওজুদের ভান্ডার। এমন খবরে গত ১৪ নভেম্বর পুলিশ পরিদর্শক শাহ কামাল আকন্দের ততবাবধানে এস আই আলাউদ্দিন বাদল অভিযান পরিচালনা করেন। জেলা গোয়েন্দা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১ হাজার ৪০ লিটার চুলাই মদ উদ্ধার করে ৪ জন মদ ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেন। এর পর দু-দফা অভিযান চালায় ১ নং ফাড়ি পুলিশ। তারাও ১ হাজার ৬০ লিটার অবৈধ মদ উদ্ধার করে। তবে সাধারন মানুষ ও সুশীল সমাজ এই অভিযানের ব্যাপক প্রশংসা করেছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পুলিশ সুপার ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশদের অভিনন্দন জানানোর ধুম পড়ে। সুত্র জানায়, স্থানীয় এশটি সাপ্তাহিক পত্রিকায় সংবাদটি ফলাও হলে উর্ধতন পুলিশ কর্মকর্তাদের নজরে আসে। জেলা গোয়েন্দা সংস্থাও সংবাদটি নজরে আনেন।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো