English|Bangla আজ ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার সন্ধ্যা ৬:০১
শিরোনাম
সাতক্ষীরা রেঞ্জে দু’দিনে দু’জনের উপর বাঘের হামলা নিহত -১ আহত -১রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, এস আই গোলাম মোস্তফা।নবীনগরে কুয়েত প্রবাসী ওবায়েদউল্লাহ নিজেস্ব অর্থায়নে দরিদ্রজনগোষ্ঠী মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরননবীনগরে ইয়াবাসহ একাধিক মাদক মামলার আসামি এম এস কে মাহবুব ও সাংবাদিক গ্রেপ্তার!গংগাচড়ায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে অটোরিকশা ছিনতাইয়ের চেষ্টা আটক – ১পাটগ্রাম থানা লালমনিরহাট জেলায় শ্রেষ্ঠ থানা নির্বাচিতনরসিংদীর শিবপুরে ৪০ দিন জামাতে নামাজ পড়ে পুরস্কার জিতে নিয়েছে ২০ কিশোরদিনাজপুর জেলা ছাত্রলীগ কর্মী’র মাক্স বিতরণচট্টগ্রামে তারাবি দিয়ে অর্ধশতাধিক গ্রামে একদিন আগেই রোজা শুরুধর্ষণের শিকার কিশোরি মা-বাবাকে নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে

জামালগঞ্জের চান্দবাড়ি নূরিয়া মহিলা মাদ্রাসার ভর্তি কার্যক্রম শুরু প্রদান করা হলো পরিচিতি কার্ড

মোঃ আবুল কালাম জাকারিয়া জামালগঞ্জ প্রতিনিধি-::

সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলাধীন ভীমখালী ইউনিয়নের অন্তর্গত চান্দবাড়িতে প্রতিষ্ঠিত চন্দবাড়ি নূরিয়া মহিলা মাদ্রাসার ২০২০ সালের ভর্তি কার্যক্রম আজ থেকে শুরু হয়। সাথে ভর্তিকৃত 2020 সালের নতুন নূরানী ছাত্র-ছাত্রীদের পরিচিতি কার্ড প্রদান করা হয়। 22 ডিসেম্বর রবিবার দুপুরে।

উক্ত প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম ইমাম ও খতিব মাওলানা ইলিয়াস আহমেদের সঞ্চালনায় পরিচিতি কার্ড প্রদান ও আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উক্ত প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আব্দুল মজিদ, প্রতিষ্ঠাতা উপদেষ্টা মাস্টার সুলতান উদ্দিন, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট কলামিস্ট, ব্যবসায়ী, হিলফুল ফুযুল পরিষদ এর সেক্রেটারি ও নোয়াগাঁও বাজার জামে মসজিদের মোতাওয়াল্লী রেজাউল করিম কাপ্তান, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইমাম-খতিব, আলেম সাংবাদিক মোঃ আবুল কালাম জাকারিয়া, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ মহিউদ্দিন প্রমুখ।

প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠাতা উপদেষ্টা সিরাজুল ইসলাম সাবেক মেম্বারের অর্থায়নে নতুন ছাত্র-ছাত্রীদের পরিচিতি কার্ড গলায় প্রদান করা হয়। আপনার মেয়েকে ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত করতে যে কোন মহিলা মাদ্রাসায় ভর্তি করুন। এখানে ক্লাস 1 থেকে 5 পর্যন্ত নূরানী পদ্ধতিতে বাচ্চাদের আরবি বাংলা ইংরেজি মিডিয়াম মেয়ে শিক্ষা প্রদান করা হয়। বড় মেয়েদের শুধু মহিলাদের দ্বারা পাঠদান করানো হয়।

এরকম মনোরম পরিবেশে শিক্ষার মান অবশ্যই বাড়ার কথা। আজকের এই পরিবেশটি দেখে সত্যিই আমি মুগ্ধ হলাম। উপরোক্ত কথাগুলো বলেন কার্ড প্রদান ও আলোচনা সভার প্রধান অতিথি। বিশেষ অতিথি বলেন, সহশিক্ষা তো আমরা অনেক জায়গায় দেখে আসতেছি, কিন্তু একতরফা মেয়েদের শুধু মহিলাদের দ্বারা পাঠদান করানো খুব কমই দেখি। এজন্য আমি মনে করি ব্যতিক্রমধর্মী মহিলা মাদ্রাসার প্রয়োজন আছে।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো