English|Bangla আজ ৮ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার সন্ধ্যা ৬:১৬
শিরোনাম

চিলমারীতে জ্বালানী তেল সরবরাহ এবং ডিপো স্থাপনের দাবীতে মানববন্ধন

এস, এম নাজমুল আলম, চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে জ¦ালানী তেল সরবরাহ এবং ডিপো স্থাপনের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে রংপুর বিভাগ ট্যাংক-লড়ি শ্রমিক ইউনিয়নের আয়োজনে কুড়িগ্রাম-চিলমারী সড়কে ঘন্টাব্যাপি এই মানববন্ধন হয়। তেলের ডিপোতে অ-ব্যবস্থাপনা, দুর্নীতি, সিন্ডিকেট মুক্ত করন, পর্যাপ্ত পরিমানে জ্বালানী তেল মজুদ ও ট্যাংকলড়ির মাধ্যমে রংপুর বিভিাগের সকল জেলায় জ্বালনী তেল সরবরাহ, পরিবহনের নির্দেশ দানসহ ভাসমান ডিপোকে স্থায়ী শোর ডিপোতে বাস্তবায়ন করার দাবিতে এই মানববন্ধন ও সমাবেশ করেন এলাকাবাসী। মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধান মন্ত্রী বরাবরে স্বারক লিপি পেশ করেন তারা। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম লিচু, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফা রঞ্জু, রংপুর বিভাগ ট্যাংক-লড়ি শ্রমিক ইউনিয়নের চিলমারী শাখার সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা নুর মেহাম্মদ, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা রিয়াজুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম খুশু, চিলমারী প্রেসক্লাবের সভাপতি নজরুল ইসলাম সাবু প্রমুখ। বক্তারা বলেন কর্তৃপক্ষ আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ডিপোতে তেল সরবরাহ না করলে হরতাল, অবরোধসহ বৃহত্তর কর্মসূচির নেয়া হবে বলে হুশিয়ারী দেন। উল্লেখ্য চিলমারী নদী বন্দরে ১৯৮৯ সালে উত্তরবঙ্গে জ¦ালানী তেল সরবরাহের উদ্দেশ্যে তিনটি ভাসমান তেল ডিপো স্থাপতি হয়েছে। ইতোমধ্যে অবহেলা,নজরদারীর অভাবে ভাসমান পদ্মা ডিপোটি চিলমারী হতে উঠিয়ে নেয়া হয়। এছাড়াও ব্রহ্মপুত্র নদের নাব্যতার সংকট, উর্দ্বধতন কর্মকর্তাদের নানা অনিয়ম ও সিন্ডিকেটের কারণে দীর্ঘদিন ধরে যমুনা ও মেঘনা ভাসমান তেল ডিপোতে তেল সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। এতে করে কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, জামালপুর, গাইবান্ধার চরাঞ্চলসহ বৃহত্তর রংপুর বিভাগের প্রায় অর্ধকোটি কৃষক, নৌযান, ব্যবসায়ী ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়েছে।

এস, এম নাজমুল আলম
চিলমারী প্রতিনিধি
চিলমারী, কুড়িগ্রাম।
মোবাইলঃ ০১৭১৩৭১৬৩০২

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো